Home / বাণী চিরন্তন / শ্রেষ্ঠ বাণী চিরন্তন

শ্রেষ্ঠ বাণী চিরন্তন

শ্রেষ্ঠ বাণী চিরন্তন
১। মহা মানবের মধ্যে আল্লাহর প্রথম বাণী পড়।
-আল কোরআন
২। বিদ্ধানের কলমের কালি শহীদের রক্তের চেয়ে পবিত্র।
– আল হাদিস
৩। চিন্তা কর বেশী, বল কম, লেখো তার চেয়েও কম।
– জনরে
৪। অনেক কিছু ফিরে আসে, ফিরিয়ে আনা যায়, কিন্তু সময়কে ফিরিয়ে আনা যায় না
-আবুল ফজল
৫। অভাব যখন দরজায় এসে দাঁড়ায়, ভালোবাসা তখন জানালা দিয়ে পালায় ।
-শেক্সপিয়র
৬। জীবন চলার পথে বাঁধা আসতেই পারে, তাই বলে থেমে যাওয়ার কোন অবকাশ নেই, যেখানে বাঁধা আসবে সেখান থেকেই আবার শুরু করতে হবে।
– রেদোয়ান মাসুদ
৭। অসৎ আনন্দের চেয়ে পবিত্র বেদনা ভালো।
-হোমার
৮। অসহায়কে অবজ্ঞা করা উচিত নয়, কারণ মানুষ মাত্রেই জীবনের কোন না কোন সময় অসহায়তার শিকার হবে ।
-গোল্ড স্মিথ
৯। অসহায়কে অবজ্ঞা করা উচিত নয়, কারণ মানুষ মাত্রেই জীবনের কোন না কোন সময় অসহায়তার শিকার হবে ।
-গোল্ড স্মিথ
১০। আইন ভাঙ্গার জন্যই তৈরী হয় ।
-জন উইলসন।
১১। আমরা যতই অধ্যয়ন করি ততই আমাদের অজ্ঞানতাকে আবিষ্কার করি।
-শেলী
১২। আমার দোষ তুমি আমাকেই বল।
-ইমাম গাজ্জালী
১৩। আমার বন্ধুর জন্যে সবচেয়ে বেশি যা করতে পারি তা হলে শুধু বন্ধু হয়ে থাকা। তাকে দেয়ার মতো কোন সম্পদ আমার নেই। সে যদি জানে যে আমি তাকে ভালবেসেই সুখী, সে আর কোন পুরস্কারই চাইবে না। এক্ষেত্রে বন্ধুত্ব কি স্বর্গীয় নয়।
-হেনরি ডেভিড থিওরো
১৪। আমি আল্লাহকে সবচেয়ে বেশি ভয় পাই। তারপর সেই মানুষকে ভয় পাই যে আল্লাহকে মোটেই ভয় পায় না।
-শেখ সাদী
১৫। ভবিষ্যতে যার কাছ থেকে তুমি সবচেয়ে বড় কষ্টটি পাবে, আজ সে তোমার সবচেয়ে কাছের কোন একজন।
-রেদোয়ান মাসুদ
১৬। আমি তিনটি খবরের কাগজকে এক লক্ষ বেয়নেট অপেক্ষা বেশী ভয় করি
-নেপোলিয়ান।
১৭। আমি তোমাদের বলেছি যে তোমরা মিনিটের খেয়াল রাখো, তাহলে দেখবে ঘন্টাগুলো আপনা থেকেই নিজেদের খেয়াল রাখছে।
-চেষ্টারফিল্ড
১৮। আমি ব্যর্থতা কে মেনে নিতে পারি কিন্তু আমি চেষ্টা না করাকে মেনে নিতে পারিনা।
-মাইকেল জর্ডান
১৯। আহ্, কী ভালোই না লাগে- পুরনো বন্ধুর হাত।
-মেরি এঙলেবাইট
২০। উচ্চাশা যেখানে শেষ হয়, সেখান থেকেই শান্তির শুরু হয়।
-ইয়ং
২১। এই পৃথিবী কখনো খারাপ মানুষের খারাপ কর্মের জন্য ধ্বংস হবে না , যারা খারাপ মানুষের খারাপ কর্ম দেখেও কিছু করেনা তাদের জন্যই পৃথিবী ধ্বংস হবে।
-আইনস্টাইন
২২। একজন আহত ব্যক্তি তার যন্ত্রনা যত সহজে ভুলে যায়, একজন অপমানিত ব্যক্তি তত সহজে অপমান ভোলে না ।
-জর্জ লিললো
২৩। একজন ঘুমন্ত মানুষ আরেকজন ঘুমন্ত মানুষকে জাগাতে পারেনা।
-শেখ সাদী
২৪। একজন বিশ্বস্ত বন্ধু দশ হাজার আত্মীয়ের সমান
-ইউরিপিদিস
২৫। একজন মহান ব্যক্তির মহত্ব বোঝা যায় ছোট ব্যক্তিদের সাথে তার ব্যবহার দেখে।
-কার্লাইল
২৬।একফোঁটা শিশিরেও বন্যা হতে পারে যদি গর্তটা হয় পিঁপড়ের।
-ফারসি প্রবাদ
২৭। একমাত্র সৎ ব্যক্তিরাই অন্যকে কঠোরভাবে তিরস্কার করতে পারে
-জর্জ ম্যারাডিথ।
২৮। মনের মতো মানুষ ছাড়া সংসার করা আর ডাস্টবিনের পাশে বসে থাকা একই কথা।
-রেদোয়ান মাসুদ
২৯। কৃতজ্ঞ কুকুর অকৃতজ্ঞ মানুষ অপেক্ষা শ্রেয়।
-শেখ সাদী।

৩০। কথা-বার্তায় ক্রোধের পরিমান খাবারের লবনের মত হওয়া উচিত। পরিমিত হলে রুচিকর, অপরিমিত হলে ক্ষতিকর।
-প্লেটো
৩১। কান্না চোখের একটি মহৎ ভাষা
-রবার্ট হেরিক।
৩২। কারো অতীত জেনোনা, বর্তমানকে জানো এবং সে জানাই যথার্থ ।
-এডিসন
৩৩। কিভাবে কথা বলতে হয় না জানলে অন্তত কিভাবে চুপ থাকতে হয় তা শিখে নাও। -অজানা
৩৪। কে আমাদের একশবার রসগোল্লা খাইয়েছিল তা আমরা ভুলে যাই। কিন্তু কে কবে একবার কান মুচড়ে দিয়েছিল তা মনে রাখি।
-আবদুল্লাহ আবু সাঈদ
৩৫। মন অনেক কিছুই চাইবে, কিন্তু তা বিবেক দিয়ে বিচার করবে। তাহলেই তুমি বুঝবে কোনটা তোমার করা উচিত আর কোনটা করা উচিত নয়।
-রেদোয়ান মাসুদ
৩৬। গরীব খোঁজে খাদ্য, আর ধনী খোঁজে ক্ষিধে।
-হিন্দি প্রবাদ
৩৭। গোপন কথা তোমার গোলাম। ফাঁস করে দিলে তুমি তার গোলাম।
-আরবি প্রবাদ
৩৮। ছবি হল নীরব কবিতা। আর কবিতা হল নীরব ছবি যা কথা বলে।
-সিমোনিডেস
৩৯। ছেলেরা পাবার ভেতর দিয়ে মেয়েদের দেয়। আর মেয়েরা দেবার ভেতর দিয়ে ছেলেদের পায়।
-অজানা
৪০। জ্ঞানীলোকের কানটা বড় আর জিভটা ছোট হয়।
-চীনা প্রবাদ
৪১। জন্মদিনে এত উল্লসিত হবার কিছু নেই। মনে রেখ, তুমি মৃত্যুর দিকে আরো এক ধাপ এগিয়ে গেলে।
-অজানা
৪২। জীবনকে এক পেয়ালা চায়ের সাথে তুলনা করা যেতে পারে। যতই তৃপ্তির সাথে আমরা তা পান করি ততই দ্রুত তলার দিকে অগ্রসর হতে থাকি।
-ক্রিনেট
৪৩।জীবনে যে অকৃতকার্য হয় নাই, সে কোনদিন সম্পদশালী হতে পারে না।
-সি. এইচ. স্পারজন।
৪৪। জীবনের প্রতিটি সিঁড়িতে পা রেখে ওপরে ওঠা উচিত। ডিঙ্গিয়ে উঠলে পড়ে যাবার সম্ভাবনা বেশি।
-হুইটিয়ার
৪৫। স্বপ্ন শুধু হাসায় না কাদায়ও।
-রেদোয়ান মাসুদ
৪৬। তিন ইঞ্চি লম্বা জিভ একজন সাতফিট মানুষকেও ধরাশায়ী করতে পারে
-চীনা প্রবাদ
৪৭। দুঃখ নিজেই নিজের খেয়াল রাখতে পারে, কিন্তু আনন্দের পুরোটা উপভোগ করতে চাইলে অবশ্যই তোমাকে তা কারো সঙ্গে ভাগ করে নিতে হবে।
-মার্ক টোয়েন
৪৮। দুর্ভাগ্যবান তারাই যাদের প্রকৃত বন্ধু নেই।
-অ্যারিস্টটল
৪৯। দেশপ্রেমিকের রক্তই স্বাধীনতা বৃক্ষের বীজ স্বরূপ।
-টমাস ক্যাম্পবেল।
৫০। ধৈর্যশীল ব্যক্তির ক্রোধ থেকে সাবধান।
-ড্রাইডেন
৫১। নুড়ি হাজার বছর ঝরণায় ডুবে থেকেও রস পায় না।
-কাজী নজরুল ইসলাম
৫২। নতুন দিনই নতুন চাহিদা ও নতুন দৃষ্টিভঙ্গির জন্ম দেয়।
-জন লিভেগেট
৫৩। নদীতে স্রোত আছে তাই নদী বেগবান, জীবনে দ্বন্দ্ব আছে তাই জীবন
বৈচিত্র্যময়।
-টমাস মুর।
৫৪। নাস্তিক হচ্ছে নিজের প্রচারিত ধর্মের স্বঘোষিত নবী এবং তার নিজ ধর্মের একমাত্র উম্মাত।
-অজানা
৫৫। নিচ লোকের প্রধান হাতিয়ার হচ্ছে অশ্লীল বাক্য।
-হযরত আলী (রা)
৫৬। নিয়তি তোমার আত্মীয় বেছে দেয়, আর তুমি বেছে নাও তোমার বন্ধু।
-জ্যাক দেলিল ১৭৩৮-১৮১৩], ফরাসী কবি
৫৭। প্রত্যেককে বিশ্বাস করা বিপদজনক, কিন্তু কাউকে বিশ্বাস না করা আরো বেশী বিপদজনক।
-আব্রাহাম লিংকন।
৫৮। পরের উপকার করা ভাল কিন্তু নিজেকে পথে বসিয়ে নয়।
-এডওয়ার্ড ইয়ং।
৫৯। বই ভালো সঙ্গী। এর সঙ্গে কথা বলা যায়। বই সব উপদেশই দেয় কিন্তু কোন কাজ করতেই বাধ্য করে না।
-হেনরী ওয়ার্ড বিশার
৬০। বড় হতে হলে সর্ব প্রথম সময়ের মূল্য দিতে হবে।
-ডিকেন্স
৬১। বুদ্ধিহীনের সুখ্যাতি ও সম্পদ ভয়ংকর সম্পদ বিশেষ।
-ডেমোক্রিটাস
৬২। বন্ধু কি ? এক আত্মার দুইটি শরীর।
-এরিস্টটল
৬৩। বন্ধুত্ব একবার ছিঁড়ে গেলে পৃথিবীর সমস্ত সুতো দিয়েও রিপু করা যায় না।
-কার্লাইল
৬৪। বন্ধুত্ব একমাত্র সিমেন্ট যা সবসময় পৃথিবীকে একত্র রাখতে পারবে।
-উইড্রো উইলসন
৬৫। বন্ধুদের মধ্যে সবকিছুতেই একতা থাকে ।
-প্লেটো
৬৬। বুলেট ব্যতীত বিপ্লব হয় না।
-চে গুয়েভারা।
৬৭। বিদ্রোহী মানে কাউকে না মানা নয়। যা বুঝিনা তা মাথা উঁচু করে বুঝি না বলা।
-কাজী নজরুল ইসলাম
৬৮। বিধাতার নিকট আমার প্রার্থণা এই যে আমাকে তুমি বন্ধু দিও না, শত্রু দিও, যাতে আমি আমার ভূলগুলো ধরতে পারি। -জন ম্যাকি
৬৯। বিশ্বাস জীবনকে গতিময়তা দান করে, আর অবিশ্বাস জীবনকে দুর্বিসহ করে তোলে।
-মিল্টন
৭০। ভবিষৎকে জানার জন্যই আমাদের অতীত জানা উচিত।
-জন ল্যাক হন
৭১। ভাগ্য সবার দুয়ারে আসার জন্যই অপেক্ষা করে, কিন্তু উপযাচক হয়ে আসে না, ডেকে আনতে হয়।
-ইলা অলড্রিচ
৭২। ভীরুরা মরার আগে বারে বারে মরে। সাহসীরা মৃত্যুর স্বাদ একবারই গ্রহণ করে।
-শেক্সপীয়ার
৭৩। মা সকল ক্ষেত্রে সকল পরিবেশেই মা।
-লেডি বার্নার্ড।
৭৪। মানুষের পয়লা নাম্বার শত্রু হল সময়।
-সঞ্জীব চট্টোপাধ্যায়
৭৫। মানুষের সর্বোৎকৃষ্ট শিক্ষকই হল মহৎ ব্যক্তিদের আত্নজীবনী ও বাণী।
-ওরসন স্কোরার ফাউলার
৭৬। মানুষের সর্বোচ্চ সাফল্য সবটুকু করতে পারায় নয়, সাধ্যমত করতে পারায়।
-অজানা
৭৭। যদি তুমি মানুষকে বিচার করতে যাও তাহলে ভালবাসার সময় পাবে না।
-মাদার তেরেসা
৭৮। যারা আমাকে সাহায্য করতে মানা করে দিয়েছিল আমি তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ, কারন তাদের ‘না’ এর জন্যই আজ আমি নিজের কাজ নিজে করতে শিখেছি।
-আইনস্টাইন
৭৯। স্বপ্ন তাকে নিয়েই দেখ যে শুধু স্বপ্ন দেখায় না বাস্তবায়নও করে, কিন্তু এমন কাউকে নিয়ে স্বপ্ন দেখ না যে স্বপ্ন দেখিয়ে নিজেই হারিয়ে যায়।
-রেদোয়ান মাসুদ
৮০। যারা বলে অসম্ভব, অসম্ভব তাদের দুয়ারেই বেশি হানা দেয়।
-জন সার্কল
৮১। যে ইচ্ছাপূর্বক বন্ধুকে ঠকায়, সে তার খোদাকেও ঠকাতে পারে ।
-লাভাটাব
৮২। যে একজনও শত্রু তৈরি করতে পারেনি সে কারো বন্ধু হতে পারে না।
-আলফ্রেড টেনিস
৮৩। যে দৃষ্টির সংগে মনের যোগাযোগ নাই-সে তো দেখা নয়, তাকানো।
-যাযাবর
৮৪। যে নদীর গভীরতা বেশি, তার বয়ে যাওয়ার শব্দ কম।
-জন লিভগেট
৮৫। যে ন্যায়ের পক্ষে, সে সত্যের পক্ষে।
-রাহুল সাংকৃত্যায়ন।
৮৬। যে নিজেকে অক্ষম ভাবে, তাকে কেউ সাহায্য করতে পারে না।
-জন এন্ডারসন
৮৭। যে নিজেকে অক্ষম ভাবে, তাকে কেউ সাহায্য করতে পারে না।
-জন এন্ডারসন
৮৮। যে নিজের মর্যাদা বোঝে না অন্যেও তার মর্যাদা দেয় না!
-হযরত আলী (রাঃ)
৮৯। যে বিজ্ঞানকে অল্প জানবে সে নাস্তিক হবে, আর যে ভালো ভাবে বিজ্ঞানকে জানবে সে অবশ্যই ঈশ্বরে বিশ্বাসী হবে ।
-ফ্রান্সিস বেকন
৯০। যে মাথা নোয়াতে জানে, সে কখনো মাথা খোয়ায় না।
-লাউতজে
৯১। যে সৎ হয় নিন্দা তার কোন অনিষ্ট করতে পারে না!
-শেখ সাদী
৯২। যে সম্পদ কারো চোখে পড়ে না তা-ই মানুষকে সুখী ও ঈর্ষাতীত করে তোলে
-বেকন।
৯৩। যেখানে পরিশ্রম নেই সেখানে সাফল্য ও নেই
-উইলিয়াম ল্যাংলয়েড
৯৪। রাগকে শাসন না করলে রাগই সম্পূর্ণ মানুষটিকে শাসন করে।
-সেফটিস বারী
৯৫। শত্রু মরে গেলে আনন্দিত হবার কারন নেই। শত্রু সৃষ্টির কারনগুলো এখনও মরেনি।
-ওল পিয়ার্ট
৯৬। শিক্ষার শেকড়ের স্বাদ তেঁতো হলেও এর ফল মিষ্টি
-এরিস্টটল।
৯৭। শিয়ালের মতো একশো বছর জীবন ধারণ করার চাইতে সিংহের মতো একদিন বাঁচাও ভাল ।
-টিপু সুলতান

৯৮। সৎ হতে হবে অথবা সৎ লোকের অনুসন্ধান করতে হবে।
-ডেমিক্রিটাস
৯৯। সুখে থাকাই জীবনের চরম সার্থকতা নয় বরং কাউকে সুখে রাখতে পারাটাই হলো জীবনের সবচেয়ে বড় সার্থকতা”।
-রেদোয়ান মাসুদ
১০০।সব লোকের ঘাড়েই মাথা আছে, কিন্তু মস্তিষ্ক আছে কিনা সেটাই প্রশ্ন।
-জুভেনাল
১০১। সবচে’ জ্ঞানী ব্যক্তিটিও উত্তর জানেনা এমন হাজার প্রশ্ন করতে পারে শিশুরা।
-জে এবট
১০২। সবার সঙ্গে তাল মিলিয়ে যে কথা বলে সে ব্যক্তিত্বহীন ।
-মার্ক টোয়াইন
১০৩। সময় চলে যায়না, আমরাই চলে যাই ।
-অস্টিন ডবসন
১০৪। সময় দ্রুত চলে যায়, এর সদ্ব্যবহার যারা করতে পারে, তারাই সফল ও সার্থক বলে পরিচিত হয়।
-বেকেন বাওয়ার
১০৫। সময়ের সমুদ্রে আছি,কিন্তু একমুহূর্ত সময় নেই।
-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
১০৬। সর্বোৎকৃষ্ট আয়না হলো একজন পুরনো বন্ধু ।
-জর্জ হার্বাট
১০৭। হ্যাঁ’ এবং ‘না’ কথা দুটো সবচে’ পুরনো এবং সবচে’ ছোট । কিন্তু এ কথা দু’টো বলতেই সবচে’ বেশি ভাবতে হয়।
-পীথাগোরাস
১০৮। প্রচুর ধন সম্পত্তির ভিতরে সুখ নেই, মনের সুখ প্রকৃত সুখ।
-আল হাদিস
১০৯। পূর্ণ অর্জন অপেক্ষায়, পাপ বর্জন করা শ্রেষঠতর।
-হজরত আলী (রাঃ)
১১০। অসৎ লোক কাউকে সৎ মনে করে না, সকলকেই সে নিজের মত ভাবে।
-হজরত আলী (রাঃ)
১১১। ধর্ম নিয়ে যারা কোন্দল করে, ধর্মের মর্ম তারা জানে না।
-ডঃ মুহাম্মদ শহীদল্লাহ
১১২। প্রতিদিন আমাদের এমনভাবে কাটানো উচিত, যেন আজ জীবনের শেষ দিন।
-সেনেকা
১১৩। যদি সর্বোচ্চ আসন পেতে চাও, তাহলে নিম্নস্থান থেকে আরম্ভ কর।
-সাইরাস
১১৪। নিয়তি তোমাকে যা দান করে’ তার মধ্যে সবচেয়ে উত্তম দান তোমার স্ত্রী।
-পোপ
১১৫। তিনিই প্রকৃত সুখি, যিনি প্রয়োজনের তুলনায় বেশি আশা করে না।
-ভার্জিল
১১৬। জগতের সবচেয়ে সুন্দর জিনিসগুলি এবং মুল্যবান জিনিসগুলি সবচেয়ে অকেজো।
-রাসকিন
১১৭। জীবনের প্রতি ক্ষেত্রে কি পেলাম সেটাই বড় প্রশ্ন নয়, বরং কি করেছি সেটাই বড় প্রশ্ন।
-কালাইল
১১৮। নদীতে স্রোত আছে, তাই নদী বেগ বান। জীবনে দন্দ্ব আছে তাই জীবন বৈচিত্রময়। -টমাস মুর
১১৯। প্রয়োজনের অতিরিক্ত অর্থ, কোনো মানুষের মঙ্গল আনতে পারে না।
-নীহা রঞ্জন
১২০। সৎ পরামর্শের চেয়ে কোনো উপহার অধিক মূল্য নয়।
-ইমার সন
১২১। মানুষ যত গোপন পাপ করুক না কেন, তার শাস্থি সে প্রকাশ্যেই পায়।
-বেল জনসন
১২২। সব সমস্যার প্রতিকারই হচ্ছে ধৈর্য্য।
-হোয়াটলি
১২৩। যাহা তুমি দেখাও, তার চেয়ে বেশি তোমার থাকা উচিত। যা তুমি জান, তার তুলনায় কম কথা বলা উচিত।
-উইলিয়াম সেক্সপিয়ার
১২৪। যার যেটা নেই সে কখনও সেটার মূল্য বুঝে না, একমাত্র সেই ব্যক্তিই সেটার মূল্য বুঝে যার কোন জিনিস পূর্বে ছিল কিন্তু এখন নেই”
-রেদোয়ান মাসুদ
১২৫। দুঃখ-কষ্ট নিয়েই মানুষের জীবন, কিন্তু দুঃখের পর সুখ আসবে, এটাই ধ্রুব সত্য।
-এডওয়ার্ড ইয়ং
১২৬। পতন অনেক ক্ষেত্রে সত্যকে উপলব্ধি করতে সাহায্য করে।
-জনলিলি
১২৭। যে যে বিষয়ে প্রশিক্ষণ নিয়েছে সে সেই বিষয়ে শিক্ষিত, কাজেই সবাই শিক্ষিত।
– নেপোলিয়ান
১২৮। যে দৃষ্টির সঙ্গে মনের যোগাযোগ নেই সে তো দেখা নয়, তাকানো – যাযাবর
১২৯। সেই যথার্থ মানুষ যে জীবনের পরিবর্তন দেখেছে এবং পরিবর্তনের সাথে নিজেও পরিবর্তিত হয়েছে।
– বায়রন
১৩০। অন্যকে বারবার ক্ষমা কর কিন্তু নিজেকে কখনোই ক্ষমা করিও না – সাইরাস
কান্নায় অনন্ত সুখ আছে তাইতো কাঁদতে এত ভালোবাসি।
– স্বামী বিবেকানান্দ
১৩১। জ্ঞানের ন্যায় পবিত্র বস্তু জগতে আর কিছুই নেই।
– পবিত্র গীতা
১৩২। যৌবন যার সৎ, সুন্দর ও কর্মময় তার বৃদ্ধ বয়সকে স্বর্ণযুগ বলা হয়।
– জর্জ গ্রসভিল
১৩৩। আমি চলে গেলে যদি কেউ না কাঁদে তবে আমার অস্তিত্বের কোন মূল্য নেই। – সুইফট
১৩৪। পৃথিবীতে কঠিন বাস্তবের মধ্যে একটি বাস্তব হলোঃ মানুষ যখন সাফল্যের দ্বারপ্রান্তে এসে পৌছায়, আর তখনই তার প্রিয় মানুষটি হারিয়ে যায়।
-রেদোয়ান মাসুদ
১৩৫। অসৎ ব্যক্তি সৎ ব্যক্তির কাজের মধ্যে কোন মহৎ উদ্দেশ্য খুঁজে পায় না।
– জন বেকার
১৩৬। সব দুঃখের মূল এই দুনিয়ার প্রতি অত্যাধিক আকর্ষণ।
– হযরত আলী (রাঃ)
১৩৭। আগুন দিয়ে যেমন লোহা চেনা যায় তেমনি মেধা দিয়ে মানুষ চেনা যায়।
– জন এ শেড
১৩৮। সময় বেশি লাগিলেও ধৈর্য সহকারে কাজ কর, তাহলেই প্রতিষ্ঠা পাবে ।
– ডব্লিউ এস ল্যান্ডের
১৩৯। একজন অলস মানুষ স্বভাবতই খারাপ মানুষ।
– এস টি কোলরিজ
১৪০। সাহস নিয়ে বেঁচে থাকো না হয় মরে যাও।
– মেরিডিথ
১৪১। সৎ লোক সাতবার বিপদে পড়লে আবার উঠে কিন্তু অসৎ লোক বিপদে পড়লে একবারে নৃপাত হয়।
– হযরত সুলায়মান
১৪২। যদি তুমি কখনো অপমানিত বোধ কর তবে অপরকে সেটা বুঝতে দেবে না।
– জন বেকার
১৪৫। যে মন খুলে হাসতে পারে না সেই পৃথিবীতে সবচেয়ে অসুখী।
– জন লিলি
১৪৬। ভালোবাসার জন্য যার পতন হয় সে বিধিতার কাছে আকাশের তারার মত উজ্জ্বল। – জনসন
১৪৭। অন্ধকারে একজন বন্ধুর সঙ্গে হাঁটা আলোতে একা হাঁটার চেয়ে ভালো।
-হেলেন কিলার
১৪৮। পরিপূর্ণ তৃপ্তি নিয়ে কুড়ের থাকাও ভালো, অতৃপ্তি নিয়ে বিরাট অট্টালিকায় থাকার কোন সার্থকতা নেই।
– উলিয়ামস হেডস
১৪৯। প্রেমের আনন্দ থাকে স্বল্পক্ষণ কিন্তু বেদনা থাকে সারাটি জীবন।
– রবী ঠাকুর
১৫০। সেই সত্যিকারের মানুষ যে অন্যের দোষত্রুতি নিজেকে দিয়ে বিবেচনা করতে পারে।
– লর্ড হ্যলি ফক্স
১৫১। মন যা চায় তা না পাওয়াই ভালো, আর তাহলেই মানুষ বুঝে না পাওয়ার বেদনা কি!
– রেদোয়ান মাসুদ
১৫২। পুরুষের লক্ষ্য রাখা উচিত যত দিন বেশী তারা অবিবাহিত জীবনযাত্রা করতে পারে।
– জর্জ বানাডস
১৫৩। যে সহজ সরল জীবনযাপন করে সুখ তার জন্য অত্যন্ত সুলভ্য।
– আলেক জান্ডার
১৫৪। বন্ধু হচ্ছে দুটি হৃদয়ের একটি অভিন্ন মন।
– সক্রেটিস

১৫৫। যে সব দৃশ আমরা খুব মন লাগিয়ে দেখতে চাই সে সব দৃশ্য কখনো ভালভাবে দেখতে পারি না সেই সব দৃশ্য অতি দ্রুত চোখের সামনে দিয়ে চলে যায় – রবার্ট ফ্রস্ট
১৫৬। ভাগ্য বলে কিছুই নেই, প্রত্যেকের চেষ্টা ও যত্নের উপর তা গড়ে উঠে। – স্কট
১৫৭। আমি জানি না” বলতে শেখাই সবচেয়ে বড় শিক্ষা।
-হিব্রু প্রবাদ
১৫৮। অর্থ যেখানে নাই ভালোবাসা সেখানে দুর্লভ ।
-স্যার টমাস ব্রাউন
১৫৯। সবার সাথে যে তাল মিলিয়ে কথা বলে সে ব্যক্তিত্বহীন।
– মার্ক টোয়াইন
১৬০। টাকার প্রশ্নে সকলেই এক ধর্মাবলম্বী
-ভলতেয়ার।
১৬১। যারা বন্ধুদের অপমান করে, বন্ধুদের অপমানিত হতে দেখে কাপুরুষের মতো নীরব থাকে তাদের সঙ্গে সংসর্গ করো না ।
-সিনেকা
১৬২। কাউকে দুঃখ দিয়ে বেঁচে থাকার চেয়ে দুঃখ নিয়ে বেঁচে থাকা অনেক ভাল। কারণ নিজের কষ্টের জন্য কারো কাছে জবাবদিহি করতে হয় না। কিন্তু অন্যকে কষ্ট দিলে জীবন ভরে তার অভিশাপ মাথায় নিয়ে চলতে হয়”।
– রেদোয়ান মাসুদ
১৬৩। পরবর্তী দিন কখনও সুখের নয়, বিগত দিনের চেয়ে।
-মিলটন
১৬৪। সত্যকে ভালবাস, কিন্তু ভুলকে ক্ষমা কর।
-ভলতেয়ার
১৬৫। বন্ধুর সাথে এমন ব্যাবহার কর যেন বিচারকের শরণাপন্ন হতে না হয়
– প্লেটো
১৬৬। জীবন ছোট বলেই মহান।
-ডিজরেইলি

Check Also

অনুভূতি নিয়ে বাণী

অনুভূতি নিয়ে উক্তি ০১। ওহ, এতো ভাল তাকে আমি বেসেছি , ঘৃনার কোন অনুভূতিই না ...