Breaking News

ছোটদের ছড়া কবিতা

ছোটদের ছড়া কবিতা বা ছড়া হলো ছন্দে রচিত পদ্য। ছড়া সাধারণত স্বরবৃত্ত ছন্দে রচিত হয়। ছড়াসাহিত্যকে শিশুসাহিত্যের অংশ হিসেবে ধরে নেওয়া হয়। যিনি ছড়া লেখেন তাকে ছড়াকার বলা হয়ে থাকে। তবে বাংলা সাহিত্যে যারা ছড়া লিখে বিখ্যাত হয়েছেন তাদের সবাইকেই কবি বা শিশু সাহিত্যিক বলে ডাকা হয়। শিশুদের সাহিত্য সম্পর্কে জানার প্রথম সিঁড়ি হলো ছড়া। ছড়াকে কবিতার মধ্যেই ফেলা যেতে পারে। কারণ ছড়াও কবিতা, শধুমাত্র শিশুদের উপযোগী করা লেখা হয় বলে একে কবিতার ক্যাটাগরি থেকে বাদ দেওয়া উচিত না। তবে ছোটদের কবিতাও বলা যেতে পারে।

নন্দলাল – দ্বিজেন্দ্রলাল রায়

নন্দলাল তো একদা একটা করিল ভীষণ পণ- স্বদেশের তরে, যা করেই হোক, রাখিবেই সে জীবন। সকলে বলিল, ‘আ-হা-হা কর কি, কর কি, নন্দলাল’ ? নন্দ বলিল, ‘বসিয়া বসিয়া রহিব কি চিরকাল ? আমি না করিলে কে করিবে আর উদ্ধার এই দেশ ?’ তখন সকলে বলিল- ‘বাহবা বাহবা বাহবা বেশ !’ ...

Read More »

হাট্টিমাটিম টিম – রোকনুজ্জামান খান

(হাট্টিমাটিম টিম’। তারা মাঠে পাড়ে ডিম, তাদের খাড়া দুটো শিং, তারা হাট্টিমাটিম টিম।) টাট্টুকে আজ আনতে দিলাম বাজার থেকে শিম মনের ভুলে আনল কিনে মস্ত একটা ডিম। বলল এটা ফ্রি পেয়েছে নেয়নি কোনো দাম ফুটলে বাঘের ছা বেরোবে করবে ঘরের কাম। সন্ধ্যা সকাল যখন দেখো দিচ্ছে ডিমে তা ডিম ফুটে ...

Read More »

এমন যদি হতো – সুকুমার বড়ুয়া

এমন যদি হতো ইচ্ছে হলে আমি হতাম প্রজাপতির মতো নানান রঙের ফুলের পরে বসে যেতাম চুপটি করে খেয়াল মতো নানান ফুলের সুবাস নিতাম কতো । এমন হতো যদি পাখি হয়ে পেরিয়ে যেতাম কত পাহাড় নদী দেশ বিদেশের অবাক ছবি এক পলকের দেখে সবই সাতটি সাগর পাড়ি দিতাম উড়ে নিরবধি । ...

Read More »

মেঘনায় ঢল – হুমায়ুন কবির

শোন্ মা আমিনা, রেখে দে রে কাজ ত্বরা করে মাঠে চল, এল মেঘনায় জোয়ারের বেলা এখনি নামিবে ঢল। নদীর কিনার ঘন ঘাসে ভরা মাঠ থেকে গরু নিয়ে আয় ত্বরা করিস না দেরি–আসিয়া পড়িবে সহসা অথই জল মাঠ থেকে গরু নিয়ে আয় ত্বরা মেঘনায় নামে ঢল। এখনো যে মেয়ে আসে নাই ...

Read More »

পারিব না – কালীপ্রসন্ন ঘোষ

‘পারিব না’ একথাটি বলিও না আর, কেন পারিবে না তাহা ভাব একবার; পাঁচজনে পারে যাহা, তুমিও পারিবে তাহা, পার কি না পার কর যতন আবার একবার না পারিলে দেখ শতবার। পারিবে না বলে মুখ করিও না ভার, ও কথাটি মুখে যেন না শুনি তোমার। অলস অবোধ যারা কিছুই পারে না ...

Read More »

কানা বগীর ছা – খান মুহাম্মদ মইনুদ্দীন

ঐ দেখা যায় তাল গাছ ঐ আমাদের গাঁ। ঐ খানেতে বাস করে কানা বগীর ছা। ও বগী তুই খাস কি? পানতা ভাত চাস কি? পানতা আমি খাই না পুঁটি মাছ পাই না একটা যদি পাই অমনি ধরে গাপুস গুপুস খাই।

Read More »

স্বাধীনতার সুখ – রজনীকান্ত সেন

বাবুই পাখিরে ডাকি, বলিছে চড়াই- “কুঁড়ে ঘরে থেকে কর শিল্পের বড়াই; আমি থাকি মহাসুখে অট্টালিকা ‘পরে, তুমি কত কষ্ট পাও রোদ, বৃষ্টি, ঝড়ে।” বাবুই হাসিয়া কহে- “সন্দেহ কি তায় ? কষ্ট পাই, তবু থাকি নিজের বাসায়; পাকা হোক, তবু ভাই, পরের ও বাসা, নিজ হাতে গড়া মোর কাঁচা ঘর, খাসা।”

Read More »

সবার আমি ছাত্র – সুনির্মল বসু

আকাশ আমায় শিক্ষা দিল উদার হতে ভাই রে, কর্মী হবার মন্ত্র আমি বায়ুর কাছে পাই রে। পাহাড় শিখায় তাহার সমান- হই যেন ভাই মৌন-মহান, খোলা মাঠের উপদেশে- দিল-খোলা হই তাই রে। সূর্য আমায় মন্ত্রণা দেয় আপন তেজে জ্বলতে, চাঁদ শিখাল হাসতে মোরে, মধুর কথা বলতে। ইঙ্গিতে তার শিখায় সাগর- অন্তর ...

Read More »

শিক্ষাগুরুর মর্যাদা – কাজী কাদের নেওয়াজ

বাদশাহ আলমগীর- কুমারে তাঁহার পড়াইত এক মৌলভী দিল্লীর। একদা প্রভাতে গিয়া দেখেন বাদশাহ- শাহজাদা এক পাত্র হস্তে নিয়া ঢালিতেছে বারি গুরুর চরণে পুলকিত হৃদে আনত-নয়নে, শিক্ষক শুধু নিজ হাত দিয়া নিজেরি পায়ের ধুলি ধুয়ে মুছে সব করিছেন সাফ্ সঞ্চারি অঙ্গুলি। শিক্ষক মৌলভী ভাবিলেন আজি নিস্তার নাহি, যায় বুঝি তার সবি। ...

Read More »
DMCA.com Protection Status