Breaking News

জয় গোস্বামী

জয় গোস্বামী ( Joy Goswami ) ভারতের পশ্চিমবঙ্গের একজন আধুনিক বাঙ্গালী কবি। জীবনানন্দ পরবর্তী সময়ে তাকে অন্যতম জনপ্রিয় কবি হিসেবে অভিহিত করা হয়ে থাকে। জয় গোস্বামী ১৯৫৪ সালের ১০ নভেম্বর পশ্চিমঙ্গের নদীয়র রানাঘাটে জন্মগ্রহণ করেন। সাহিত্যে বিশেষ অবদানের জন্য পেয়েছেন আনন্দ পুরস্কার ও পশ্চিমবঙ্গ বাংলা আকাদেমি পুরস্কার। তার বিখ্যাত কবিতা (Poem) পাগলী, তোমার সঙ্গে, মালতীবালা বালিকা বিদ্যালয়, মেঘবালিকার জন্য রূপকথা ইত্যাদি। বর্তমানে তিনি কলকাতায় বাস করছেন।

মেঘবালিকার জন্য রূপকথা – জয় গোস্বামী

আমি যখন ছোট ছিলাম খেলতে যেতাম মেঘের দলে একদিন এক মেঘবালিকা প্রশ্ন করলো কৌতুহলে ‘এই ছেলেটা, নাম কি রে তোর?’ আমি বললাম, ফুস মন্তর মেঘবালিকা রেগেই আগুন, মিথ্যে কথা, নাম কি অমন হয় কখনো? আমি বললাম, নিশ্চয়ই হয়, আগে আমার গল্প শোনো সে বলল, শুনবো না যাঃ, সেই তো রাণী ...

Read More »

যে-ছাত্রীটি নিরুদ্দেশ হয়ে যাবে __জয় গোস্বামী

কী বুঝেছে সে-মেয়েটি ? সে বুঝেছে রাজুমামা মায়ের প্রেমিক। কী শুনেছে সে-মেয়েটি ? সে শুনেছে মায়ের শীৎকার। কী পেয়েছে সে-মেয়েটি ?–সে পেয়েছে জন্মদিন ? চুড়িদার, আলুকাবলি–কু-ইঙ্গিত মামাতো দাদার। সে খুঁজেছে ক্লাসনোট, সাজেশন– সে ঠেলেছে বইয়ের পাহাড় পরীক্ষা, পরীক্ষা সামনে–দিনে পড়া, রাতে পড়া– ও পাশের ঘর অন্ধকার অন্ধকারে সে শুনেছে চাপা ...

Read More »

আমি তো আকাশসত্য গোপন রাখিনি __জয় গোস্বামী

আমি তো আকাশসত্য গোপন রাখিনি খুলে দ্যাখো পাখির কঙ্কাল। নীচের প্রান্তরে উড়ত পাখি ও পাখিনী অনেক উপরে ঢালু বাটির মতন শূন্য ধ’রে আমি তার ছায়াচিত্র তুলে রাখতাম। এ দৃশ্য যে দেখেছিল তার মধ্যে থেকে আজ আর আলো অব্দি বেরোতে পারে না। সেখানে দিবস রাত্রি নেই, শুধু জমে থাকা থলথলে অন্ধকার ...

Read More »

কিন্তু আগুনের মধ্যে গিয়ে দাঁড়াবার কথাটা মনে থাকে যেন __জয় গোস্বামী

কিন্তু আগুনের মধ্যে গিয়ে দাঁড়াবার কথাটা মনে থাকে যেন! মাটি ফেটে তলিয়ে যাবার কথাটা যেন মনে থাকে ভূমিকম্পের ফাটল থেকে হাত বেরিয়ে আসা আর মরুভূমিতে দাঁড়িয়ে, ডিঙি মেরে, সূর্যের পেটে মুখ ঢুকিয়ে দেওয়া কয়েক যুগ পরে, সূর্য নিভে আকাশ থেকে খসে পড়ল যখন তখন, আর কিছু না পেয়ে, খিদের চোটে, ...

Read More »

কী দুর্গম চাঁদ তোর নৌকার কিনারে গেঁথে আছে __জয় গোস্বামী

কী দুর্গম চাঁদ তোর নৌকার কিনারে গেঁথে আছে! অন্যদিকে কী সুন্দর মাঝি! যার মুখ কঙ্কালের, যার বাহু জং-ধরা লোহার। বল্‌, তোর মাঝিকে বল্‌, শুরু করতে লৌহের প্রহার। অত যে দুর্মূল্য চাঁদ, সেও তো সুলভে ভাঙতে রাজি! খণ্ডে খণ্ডে জলে পড়ছে, জল ছিটকে উঠছে দূরে কাছে… বল তোর ইচ্ছে হয় না ...

Read More »

তোমাকে কাদার মধ্যে কাদাপাখি মনে করলাম __জয় গোস্বামী

তোমাকে কাদার মধ্যে কাদাপাখি মনে করলাম। মাছ খুঁজছ? লম্বা সরু ঠোঁট দিয়ে আমার খাবার জোগাড় করছ বুঝি? ওগো ও জননী পাখি, আমি স্বপ্নে ডাকি তোমার মা নাম তোমার জরায়ু-কলসী এখন তো শুকনো, শুধু বালিমাটি ভরা বুড়ি, তবু আমাকে একবার, হাত পা মুড়ে তোমার ডিমের মধ্যে শুয়ে থাকতে দেবে?

Read More »

শান্তি শান্তি শান্তি শান্তি যখন সোনালী পাগলিনী __জয় গোস্বামী

শান্তি শান্তি শান্তি শান্তি যখন সোনালী পাগলিনী তীরে বসে বসে খায় সূর্যাস্ত একের পর এক হা সমুদ্র জলরাশি শুকিয়ে রক্তাভ বালিখাত পিছনে শহর মরা ইটকাঠ ইটকাঠ স্তূপ ভোর দ্বিপ্রহর ধ্বংস, সন্ধ্যা বা নিশীথকাল শেষ বাতাসে গর্জনশীল সোনাগুঁড়ো বালিগুঁড়ো শুষে শান্তি শান্তি শান্তি ডাকে তীরে যে-সহিংস পাগলিনী সূর্যেরা কেবলই অস্তে চলে ...

Read More »

সমুদ্র তো বুড়ো হয়েছেন __জয় গোস্বামী

সমুদ্র তো বুড়ো হয়েছেন পিঠের ওপরে কতো ভারী দ্বীপ ও পাহাড় অভিযাত্রী, তোমার নৌকাই খেলনার প্রায় সংকোচ কোরো না তুমি, ওইটুকু ভার অনায়াসে সমুদ্রকে দিয়ে দেওয়া যায়!

Read More »

হিংসার উপরে কালো ঘাস __জয় গোস্বামী

হিংসার উপরে কালো ঘাস নীচে হাড়, মাটি জমা খুলি কারোর জানার কথা নয় মালসার মতো গোল পৃথিবী মুখের কাছে ধ’রে ভেতরের হাড় মাটি কয়লা তেল লোহা ফেলে দিয়ে, ফাঁকা ওই করোটিতে আমি রাত্রিভোর সশব্দ খাঁকারে রক্ত, দমকে দমকে রক্ত, ফেলি তলায় আকাশ বয়ে যায়

Read More »

হৃদপিণ্ড–এক ঢিবি মাটি __জয় গোস্বামী

হৃদপিণ্ড–এক ঢিবি মাটি তার উপরে আছে খেলবার হাড়। পাশা। হাড়। হৃদপিণ্ড, মাটি এক ঢিবি তার উপরে শাবল কোদাল চালাবার অধিকার, নিবি? চাবড়ায় চাবড়ায় উঠে আসা মাটি মাংস মাটি মাংস মাটি– পাশা। হাড়। পাশা। দূরে ক্ষতবিক্ষত পৃথিবী জলে ভেসে রয়েছে এখনো– তাকে একমুঠো, একমাটি হৃদপিণ্ড, দিবি?

Read More »
DMCA.com Protection Status