Breaking News

জসীম উদ্‌দীন

জসীম উদ্‌দীন ( Jasimuddin ) ছিলেন বাংলা সাহিত্যের অন্যতম প্রধান কবি ও লেখক। তিনি ১৯০৩ সালের ১ জানুয়ারি ফরিদপুর জেলার তাম্বুলখানা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। জসীম উদ্দীনের কবিতার মূল বিষয়বস্তু ছিল গ্রাম বাংলার চিরচায়িত রূপ। তাই তাকে পল্লী কবি উপাধিতে ভূষিত করা হয়। জসীম উদ্‌দীন রচিত আখ্যানকাব্য নকশী কাঁথার মাঠ ও সোজন বাদিয়ার ঘাট বিশ্বের বহু ভাষায় অনূদিত হয়। একজন গীতিকার ও ঔপন্যাসিক হিসেবেও তার খ্যাতি কম নয়। তৎকালীন পুর্ব বাংলার সাংস্কৃতিক আন্দোলনের অন্যতম পুরোধা ব্যক্তি ছিলেন তিনি। আসমানী, কবর, প্রতিদান, রাখালী, নিমন্ত্রণ, পল্লী-বর্ষা, নকশী কাঁথার মাঠ ইত্যাদি তার বিখ্যাত কবিতা (Poem)। পল্লী কবি জসীম উদ্দীন ১৯৭৬ সালের ১৩ মার্চ ঢাকায় মৃত্যুবরণ করেন এবং ফরিদপুরের আম্বিকাপুর গ্রামে তাকে দাফন করা হয়।

বিদায় __জসীম উদ্‌দীন

কিছুদিন বাদে আদিল কহিল, “গান ত হইল শেষ, সোনার বরণী সকিনা আমার চল আজ নিজ দেশ। তোমার জীবনে আমার জীবনে দুখের কাহিনী যত, শাখায় লতায় বিস্তার লভি এখন হয়েছে গত। চল, ফিরে যাই আপনার ঘরে শূন্য শয্যা তথা, শুষ্ক ফুলেরা ছাড়িছে নিশ্বাস স্মরিয়া তোমার কথা।” শুনিয়া সকিনা ফ্যাল ফ্যাল করি ...

Read More »

বিসর্জন __জসীম উদ্‌দীন

কি করে আদিল সময় কাটাবে? নানা সন্দেহ ভার, দহন বিষের তীর বিঁধাইয়া হানিতেছে প্রাণে তার। সে যেন দেখিছে আকাশ বাতাস সবাই যুক্তি করি, সকিনারে তার পঙ্কিল পথে নিয়ে যায় হাত ধরি। যারে দেখে তারে সন্দেহ হয়, পাড়া প্রতিবেশী জন, সকিনার সাথে কথা কহিলেই শিহরায় তার মন। ঘরের বাহির হইতে সে ...

Read More »

সকিনা __জসীম উদ্‌দীন

দুখের সায়রে সাঁতারিয়া আজ সকিনার তরীখানি, ভিড়েছে যেখানে, সেতা নাই কূল, শুধুই অগাধ পানি। গরীবের ঘরে জন্ম তাহার, বয়স বাড়িতে হায়, কিছু বাড়িল না, একরাশ রূপ জড়াইল শুধু গায়। সেই রূপই তার শত্রু হইল, পন্যের মত তারে, বিয়ে দিল বাপ দুই মুঠি ভরি টাকা আধুলির ভারে! খসম তাহার দাগী-চোর, রাতে ...

Read More »

সুখের বাসর __জসীম উদ্‌দীন

নয়া জমিদার আদিলদ্দীন ধরি সকিনারে হাত, কহিল, চল গো সোনার বরণী, মোর ঘরে মোর সাথ! মালার মতন করিয়া তোমারে পরিয়া রাখিব গলে, পঙ্খী করিয়া পুষিব তোমারে উড়াব আকাশ ভরি, আমার দুনিয়া রঙিন করিব তোমারে মেহেদী করি। সকিনা কহিল, আপনি মহান, হতভাগিনীর তরে, যাহা করেছেন জিন্দেগী যাবে ঋণ পরিশোধ করে। তবুও ...

Read More »

আসমানী – জসীম উদ্‌দীন

আসমানীরে দেখতে যদি তোমরা সবে চাও, রহিমন্দীর ছোট্ট বাড়ি রসুলপুরে যাও। বাড়ি তো নয় পাখির বাসা-ভেন্না পাতার ছানি, একটুখানি বৃষ্টি হলেই গড়িয়ে পড়ে পানি। একটুখানি হওয়া দিলেই ঘর নড়বড় করে, তারি তলে আসমানীরা থাকে বছর ভরে। পেটটি ভরে পায় না খেতে, বুকের ক’খান হাড়, সাক্ষী দেছে অনাহারে কদিন গেছে তার। ...

Read More »

মা ও খোকন __জসীম উদ্‌দীন

মা বলিছে, খোকন আমার! যাদু আমার মানিক আমার! উদয়তারা খোকন আমার! ঝিলিক মিলিক সাগর-ফেনার! ফিনকি হাসি ক্ষণিকজ্বলা বিজলী-মালার খোকন আমার! খোকন আমার দুলকি হাসি, ফুলকি হাসি জোছনা ধারার। তোমায় আমি দোলার উপর দুলিয়ে দিয়ে যাই যে দুলে, – যাই যে দুলে, সকল ভুলে, রাঙা মেঘের পালটি তুলে, দেই তোমারে দোলায় ...

Read More »

ও বাবু সেলাম বারে বার __জসীম উদ্‌দীন

ও বাবু সেলাম বারে বার, আমার নাম গয়া বাইদ্যা বাবু, বাড়ি পদ্মা পার। মোরা পঙ্খি মারি পঙ্খি ধরি মোরা পঙ্কি বেইচা খাই- মোদের সুখের সীমা নাই, সাপের মাথার মণি লয়ে মোরা করি যে কারবার। এক ঘাটেতে রান্ধি-বাড়ি মোরা আরেক ঘাটে খাই, মোদের বাড়ি ঘর নাই; সব দুনিয়া বাড়ি মোদের সকল ...

Read More »

প্রতিদান – জসীম উদ্‌দীন

আমার এ ঘর ভাঙিয়াছে যেবা, আমি বাঁধি তার ঘর, আপন করিতে কাঁদিয়া বেড়াই যে মোরে করেছে পর। যে মোরে করিল পথের বিবাগী, – পথে পথে আমি ফিরি তার লাগি। দীঘল রজনী তার তরে জাগি ঘুম যে হরেছে মোর ; আমার এ ঘর ভাঙিয়াছে যেবা আমি বাঁধি তার ঘর। আমার এ ...

Read More »

নমুদের কালো মেয়ে __জসীম উদ্‌দীন

ইতল বেতল ফুলের বনে ফুল ঝুর ঝুর করেরে ভাই। ফুল ঝুর ঝুর করে ; দেখে এলাম কালো মেয়ে গদাই নমুর ঘরে। ধানের আগায় ধানের ছড়া, তাহার পরে টিয়া, নমুর মেয়ে গা মাজে রোজ তারির পাখা দিয়া, দুর্বাবনে রাখলে তারে দুর্বাতে যায় মিশে, মেঘের খাটে শুইয়ে দিলে খুঁজে না পাই দিশে। ...

Read More »

নীড় __জসীম উদ্‌দীন

গড়াই নদীর তীরে, কুটিরখানিরে লতা-পাতা-ফুল মায়ায় রয়েছে ঘিরে। বাতাসে হেলিয়া, আলোতে খেলিয়া সন্ধ্যা সকালে ফুটি, উঠানের কোণে বুনো ফুলগুলি হেসে হয় কুটি কুটি। মাচানের পরে সীম-লতা আর লাউ কুমড়ার ঝাড়, আড়া-আড়ি করি দোলায় দোলায় ফুল ফল যত যার। তল দিয়ে তার লাল নটেশাক মেলিছে রঙের ঢেউ, লাল শাড়ীখানি রোদ দিয়ে ...

Read More »
DMCA.com Protection Status