Breaking News

জসীম উদ্‌দীন

জসীম উদ্‌দীন ( Jasimuddin ) ছিলেন বাংলা সাহিত্যের অন্যতম প্রধান কবি ও লেখক। তিনি ১৯০৩ সালের ১ জানুয়ারি ফরিদপুর জেলার তাম্বুলখানা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। জসীম উদ্দীনের কবিতার মূল বিষয়বস্তু ছিল গ্রাম বাংলার চিরচায়িত রূপ। তাই তাকে পল্লী কবি উপাধিতে ভূষিত করা হয়। জসীম উদ্‌দীন রচিত আখ্যানকাব্য নকশী কাঁথার মাঠ ও সোজন বাদিয়ার ঘাট বিশ্বের বহু ভাষায় অনূদিত হয়। একজন গীতিকার ও ঔপন্যাসিক হিসেবেও তার খ্যাতি কম নয়। তৎকালীন পুর্ব বাংলার সাংস্কৃতিক আন্দোলনের অন্যতম পুরোধা ব্যক্তি ছিলেন তিনি। আসমানী, কবর, প্রতিদান, রাখালী, নিমন্ত্রণ, পল্লী-বর্ষা, নকশী কাঁথার মাঠ ইত্যাদি তার বিখ্যাত কবিতা (Poem)। পল্লী কবি জসীম উদ্দীন ১৯৭৬ সালের ১৩ মার্চ ঢাকায় মৃত্যুবরণ করেন এবং ফরিদপুরের আম্বিকাপুর গ্রামে তাকে দাফন করা হয়।

সিন্দুরের বেসাতি __জসীম উদ্‌দীন

(রূপক নাটিকা) ওলো সোনার বরণী, তোমার সিন্দুর নি নিবারে সজনি! রাঙা তোমার ঠোঁটরে কন্যা, রাঙা তোমার গাল, কপালখানি রাঙা নইলে লোকে পাড়বে গালরে; তোমার সিন্দুর নি নিবারে সজনি! সাঁঝের কোলে মেঘরে-তাতে রঙের চূড়া, সেই মেঘে ঘষিয়া সিন্দুর করছি গুঁড়া গুঁড়ারে, তোমরা সিন্দুর নি নিবারে সজনি! এই না সিন্দুর পরিয়া নামে ...

Read More »

নকশী কাঁথার মাঠ – ০১ – জসীম উদ্‌দীন

এক বন্ধুর বাড়ি আমার বাড়ি মধ্যে ক্ষীর নদী, উইড়া যাওয়ার সাধ ছিল, পাঙ্খা দেয় নাই বিধি | — রাখালী গান এই এক গাঁও, ওই এক গাঁও — মধ্যে ধু ধু মাঠ, ধান কাউনের লিখন লিখি করছে নিতুই পাঠ | এ-গাঁও যেন ফাঁকা ফাঁকা, হেথায় হোথায় গাছ ; গেঁয়ো চাষীর ঘরগুলি ...

Read More »

নকশী কাঁথার মাঠ – ০২__জসীম উদ্‌দীন

দুই এক কালা দতের কালি যা দ্যা কলম লেখি, আর এক কালা চক্ষের মণি, যা দ্যা দৈনা দেখি, —ও কালা, ঘরে রইতে দিলি না আমারে | — মুর্শিদা গান এই গাঁয়ের এক চাষার ছেলে লম্বা মাথার চুল, কালো মুখেই কালো ভ্রমর, কিসের রঙিন ফুল! কাঁচা ধানের পাতার মত কচি-মুখের মায়া, ...

Read More »

নকশী কাঁথার মাঠ – ০৩ __জসীম উদ্‌দীন

তিন চন্দনের বিন্দু বিন্দু কাজলের ফোঁটা কালিয়া মেঘের আড়ে বিজলীর ছটা — মুর্শিদা গান ওই গাঁখানি কালো কালো, তারি হেলান দিয়ে, ঘরখানি যে দাঁড়িয়ে হাসে ছোনের ছানি নিয়ে ; সেইখানে এক চাষীর মেয়ে নামটি তাহার সোনা, সাজু বলেই ডাকে সবে, নাম নিতে যে গোনা | লাল মোরগের পাখার মত ওড়ে ...

Read More »

নকশী কাঁথার মাঠ – ০৪ __জসীম উদ্‌দীন

চার কানা দেয়ারে, তুই না আমার ভাই, আরও ফুটিক ডলক দে, চিনার ভাত খাই — মেঘরাজার গান চৈত্র গেল ভীষণ খরায়, বোশেখ রোদে ফাটে, এক ফোঁটা জল মেঘ চোঁয়ায়ে নামল না গাঁর বাটে | ডোলের বেছন ডোলে চাষীর, বয় না গরু হালে, লাঙল জোয়াল ধূলায় লুটায় মরচা ধরে ফালে | ...

Read More »

নকশী কাঁথার মাঠ – ০৫ __জসীম উদ্‌দীন

পাঁচ লাজ-রক্ত হইল কন্যার পরথম যৌবন — ময়মনসিংহ গীতিকা আশ্বিনেতে ঝড় হাঁকিল, বাও ডাকিল জোরে, গ্রামভরা-ভর ছুটল ঝপট লট্ পটা সব করে | রূপার বাড়ির রুশাই-ঘরের ছুটল চালের ছানি, গোয়াল ঘরের খাম থুয়ে তার চাল যে নিল টানি | ওগাঁর বাঁশ দশটা টাকায়, সে-গাঁয় টাকায় তেরো, মধ্যে আছে জলীর বিল ...

Read More »

নকশী কাঁথার মাঠ – ০৬ __জসীম উদ্‌দীন

ছয় ও তুই ঘরে রইতে দিলি না আমারে | . — রাখালী গান ঘরেতে রূপার মন টেকে না যে, তরলা বাঁশীর পারা, কোন বাতাসেতে ভেসে যেতে চায় হইয়া আপন হারা | কে যেন তার মনের তরীরে ভাটির করুণ তানে, ভাটিয়াল সোঁতে ভাসাইয়া নেয় কোন্ সে ভাটার পানে | সেই চিরকেলে ...

Read More »

নকশী কাঁথার মাঠ – ০৭ __জসীম উদ্‌দীন

সাত “ঘটক চলিল চলিল সূর্য সিংহের বাড়িরে” | — আসমান সিংহের গান কান্-কানা-কান্ ছুটল কথা গুন্-গুনা-গুন তানে, শোন্-শোনা-শোন সবাই শোনে, কিন্তু কানে কানে | “কি করগো রূপার মাতা? খাইছ কানের মাথা? ও-দিক যে তোর রূপার নামে রটছে গাঁয়ে যা তা! আমরা বলি রূপাই এমন সোনার কলি ছেলে, তার নামে হয় ...

Read More »

নকশী কাঁথার মাঠ – ০৮ __জসীম উদ্‌দীন

আট “কি কর দুল্যাপের মালো ; বিভাবনায় বসিয়া, আসত্যাছে বেটির দামান ফুল পাগড়ি উড়ায়া নারে |” “আসুক আসুক বেটির দামান কিছু চিন্তা নাইরে, আমার দরজায় বিছায়া থুইছি কামরাঙা পাটি মারে | সেই ঘরেতে নাগায়া খুইছি মোমের সস্র বাতি, বাইর বাড়ি বান্দিয়া থুইছি গজমতি হাতি নারে |” . — মুসলমান মেয়েদের ...

Read More »

নকশী কাঁথার মাঠ – ০৯ __জসীম উদ্‌দীন

নয় মত্স চেনে গহিন গম্ভ পঙ্খী চেনে ডাল ; মায় সে জানে বিটার দরদ যার কলিজার শ্যাল! নানান বরণ গাভীরে ভাই একই বরণ দুধ ; জগৎ ভরমিয়া দেখলাম একই মায়ের পুত | . — গাজীর গান আষাঢ় মাসে রূপীর মায়ে মরল বিকার জ্বরে, রূপা সাজু খায়নি খানা সাত আট দিন ...

Read More »
DMCA.com Protection Status