Breaking News

মহাদেব সাহা

মহাদেব সাহা (Mahadev Saha) বর্তমান সময়ের অন্যতম প্রধান বাঙ্গালি কবি। তিনি ১৯৪৪ সালের ৫ আগস্ট সিরাজগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন। বাংলা সাহিত্যে অবদানের জন্য ইতিমধ্যে লাভ করেছেন বাংলা একাডেমী পুরস্কার ও একুশে পদকসহ বিভিন্ন সম্মানজনক পুরষ্কার। মহাদেব সাহার প্রেম, ভালোবাসা ও বিরহের কবিতা পাঠকের কাছে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। মহাদেব সাহা রচিত বইয়ের সংখ্যা প্রায় একশোর কাছাকাছি। বর্তমানে তিনি কানাডায় বাস করছেন।

নববর্ষের চিঠি __মহাদেব সাহা

এবারও তেমনি শেষ চৈত্রের খর নিঃশ্বাসে নতুন বছর আসবে হয়তো; কিন্তু তুমি কি জানো এদেশে কখন আসবে নতুন দিন? কখন উদ্দীপনা অবসাদ আর ব্যর্থতাকেই দেবে নিদারুণ হানা। ছড়াবে হৃদয়ে আগামীর গাঢ় রঙে, ভাসাবে মেঘের দূর নীলিমায় স্বপ্নের সাম্পান? বলো না কখন এই ক্ষীণ হাতে ঘুরবে যুগের চাকা কখন সত্যি নতুন ...

Read More »

নারীর মুখের যোগ্য শোভা নেই __মহাদেব সাহা

কী করে বলো না করি অস্বীকার এখনো আমার কাছে একটি নারীর মুখই পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ দর্শনীয়, তার চেয়ে অধিক সুন্দর কিছু অদ্যাবধি দেখিনি কোথাও; অন্তত আমার কাছে নারীর মুখের চেয়ে অনবদ্য শিল্প কিছু নেই তাই নারীর মুখের দিকে নির্বোধের মতো চেয়ে রই, মাঝে মাঝে বিসদৃশ লাগে তবু চোখ ফেরাতে পারি না ...

Read More »

ফুল কই, শুধু অস্ত্রের উল্লাস __মহাদেব সাহা

কতোদিন কোথাও ফোটে না ফুল, দেখি শুধু অস্ত্রের উল্লাস দেখি মার্চপাস্ট, লেফট রাইট, কুচকাওয়াজ ; স্বর্ণচাঁপার বদলে দেখি মাথা উঁচু করে আছে হেলমেট ফুলের কুঁড়ির কোনো চিহ্ন নেই, গাছের আড়ালে থেকে উঁকি দেয় চকচকে নল, যেখানে ফুটতো ঠিক জুঁই, বেলি, রঙিন গোলাপ এখন সেখানে দেখি শোভা পাচ্ছে বারুদ ও বুলেট ...

Read More »

স্বাধীন প্যালেস্টাইন তোমার জন্য এই কবিতা __মহাদেব সাহা

আমার এই কবিতা, গোলাপ ও স্বর্ণচাঁপার প্রতি যার বিশেষ দুর্বলতা ছিলো যার তন্ময়তা ছিলো পাখি, ফুল ও প্রজাপতির দিকে সে এখন প্যালেস্টাইনী গেরিলাদের কানে স্বাধীনতার গান গাইছে; ইসরাইলী হামলায় ক্ষতবিক্ষত লেবাননের পল্লীতে সে এখন ব্যস্ত উদ্ধারকর্মী, হাতে শুশ্রূষার ব্যাগ নিয়ে আহত মুক্তিযোদ্ধাদের বাহুতে ব্যাণ্ডেজ বেঁধে দিচ্ছে আমার এই কবিতা; ধ্বংসস্তপের ...

Read More »

আমার প্রেমিকা __মহাদেব সাহা

আমার প্রেমিকা- নাম তার খুব ছোটো দুইটি অক্ষরে নদী বা ফুলের নামে হতে পারে এই দ্বিমাত্রিক নাম, হতে পারে পাখি, বৃক্ষ, উদ্ভিদের নামে কিন্তু তেমন কিছুই নয়, এই মৃদু সাধারন নাম সকলেরই খুব জানা। আমার প্রেমিকা প্রথম দেখেছি তাকে বহুদূরে উজ্জয়নীপুরে, এখনো যেখানে থাকে সেখানে পেঁৗছতে এক হাজার একশো কোটি ...

Read More »

এক কোটি বছর তোমাকে দেখি না – মহাদেব সাহা

এক কোটি বছর হয় তোকাকে দেখি না একবার তোমাকে দেখতে পাবো এই নিশ্চয়তাটুকু পেলে- বিদ্যাসাগরের মতো আমিও সাঁতরে পার হবো ভরা দামোদর কয়েক হাজার বার পাড়ি দেবো ইংলিশ চ্যানেল; তোমাকে একটিবার দেখতে পাবো এটুকু ভরসা পেলে অনায়াসে ডিঙাবো এই কারার প্রাচীর, ছুটে যবো নাগরাজ্যে পাতালপুরীতে কিংবা বোমারু বিমান ওড়া শঙ্কিত ...

Read More »

ভুলে-ভরা আমার জীবন __মহাদেব সাহা

ভুলে-ভরা আমার জীবন, প্রতিটি পৃষ্ঠায় তার অসংখ্য বানান ভুল এলোমেলো যতিচিহ্ন; কোথাও পড়েনি ঠিক শুদ্ধ অনুচ্ছেদ আমার জীবন সেই ভুলে-ভরা বই, প্রুফ দেখ হয়নি কখনো। প্রতিটি পাতায় তাই রাশি রাশি ভুল, ভুল কাজ, ভুল পদক্ষেপ আমার জীবন এ আগাগোড়া ভুলের গণিত, এই ভুল অঙ্ক আমি সারাটি জীবন ধরে কষে কষে ...

Read More »

আমি কেউ নই __মহাদেব সাহা

আমি কেউ নই, আমি শরীরের ভেতরে শরীর গাছের ভেতরে গাছ, এই অনন্ত দিনরাত্রির মধ্যে একটি বুদ্বুদ; আমি মানুষের মতো কিন্তু মানুষ নই শুধু মুখচ্ছবি মানুষের একটি আদল ছায়ার মানুষ; আমি কেউ নই, কোনোকিছু নই আমি মানুষের মতো এক মুখোশ মানুষ হয়তো জন্মেই মৃত আমি, হয়তো এখন কেবল ছায়া, মানুষের মতো ...

Read More »

তোমাকে লিখবো বলে একখানি চিঠি __মহাদেব সাহা

তোমাকে লিখবো বলে একখানি চিঠি কতোবার দ্বারস্ত হয়েছি আমি গীতিকবিতার, কতোদিন মুখস্ত করেছি এই নদীর কল্লোল কান পেতে শুনেছি ঝর্ণার গান, বনে বনে ঘুরে আহরণ করেছি পাখির শিস্ উদ্ভিদের কাছে নিয়েছি শব্দের পাঠ; তোমাকে লিখবো বলে একখানি চিঠি সংগ্রহ করেছি আমি ভোরের শিশির, তোমাকে লেখার মতো প্রাঞ্জল ভাষার জন্য সবুজ ...

Read More »

ফুটেছে ফুল, বিরহী তবু চাঁদ __মহাদেব সাহা

ফুটেছে ফুল ঠোঁটের মতো লাল আকাশে চাঁদ- বিরহী চিরকাল; কে যেন একা গাইছে বসে গান সন্ধ্যা নামে, দিনের অবসান। দুর পাহাড়ে শান্ত মৃদু পায়ে রাত্রি নামে স্তব্ধ নিঝুম গাঁয়ে; শূন্যে ভাসে মেঘের জলাশয় এই জীবনে সবকিছুইতো সয়। বিরহী চাঁদ মোমের মতো গলে বুকের মাঝে কিসের আগুন জ্বলে; মন পড়ে রয় ...

Read More »
DMCA.com Protection Status