Breaking News

মহাদেব সাহা

মহাদেব সাহা (Mahadev Saha) বর্তমান সময়ের অন্যতম প্রধান বাঙ্গালি কবি। তিনি ১৯৪৪ সালের ৫ আগস্ট সিরাজগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন। বাংলা সাহিত্যে অবদানের জন্য ইতিমধ্যে লাভ করেছেন বাংলা একাডেমী পুরস্কার ও একুশে পদকসহ বিভিন্ন সম্মানজনক পুরষ্কার। মহাদেব সাহার প্রেম, ভালোবাসা ও বিরহের কবিতা পাঠকের কাছে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। মহাদেব সাহা রচিত বইয়ের সংখ্যা প্রায় একশোর কাছাকাছি। বর্তমানে তিনি কানাডায় বাস করছেন।

তুমি চলে যাবে বলতেই – মহাদেব সাহা

তুমি চলে যাবে বলতেই বুকের মধ্যে পাড় ভাঙার শব্দ শুনি- উঠে দাঁড়াতেই দুপুরের খুব গরম হাওয়া বয়, মার্সির কাঁচ ভাঙতে শুরু করে; দরোজা থেকে যখন এক পা বাড়াও আমি দুই চোখে কিছুই দেখি না- এর নাম তোমার বিদায়, আচ্ছা আসি, শুভরাত্রি, খোদা হাফেজ। তোমাকে আরেকটু বসতে বললেই তুমি যখন মাথা ...

Read More »

তোমাকে যাইনি ছেড়ে __মহাদেব সাহা

তোমাকে যাইনি ছেড়ে আম-জাম কাঁঠালের বন, অশ্বত্থ-হিজল-বট, ঘুঘু-ডাকা চৈত্রের দুপুর- এই খেয়াঘাট পার হয়ে কতো আত্মীয়-বান্ধব চলে গেছে, এই গাঁয়ের হালট ধরে চলে গেছে নয়াদা ও রাঙা বৌদি আঁচলে চোখের জল মুছতে মুছতে কাকিমা ও তার কিশোরী মেয়েটি; সেই কবে মামাদের এতো বড়ো রায়বাড়ি শূন্য হয়ে গেছে- শিশুদি ও উষা ...

Read More »

না-লেখা কবিতাগুলি __মহাদেব সাহা

পথে পথে ঘুরে দেখি না, না, হারিয়ে যায়নি একটিও না-লেখা কবিতা- আছে আগুনে, ইথারে, বাষ্পে, বকটি মৌলিক পদার্থে, ণক্ষেত্রে, সমুদ্রে, আকামে আছে এই না-লেখা কবিতা। দেখি তাকে কারো চোখে হয়ে আছে দুফোঁটা নিবিড় অশ্রু, কারো বুকে অবিরাম তপ্ত দীর্ঘশ্বাস্ত কোথাওবা ফুটে আছে সবচেয়ে সুদৃশ্য গোলাপ সূনীল আকাশে রাশি রাশি তারা; ...

Read More »

প্রেমের কবিতা __মহাদেব সাহা

আমাদের সেই কথোপকথন, সেই বাক্যালাপগুলি টেপ করে রাখলে পৃথিবীর যে-কোনো গীতি কবিতার শ্রেষ্ঠ সঙ্কলন হতে পারতো; হয়তো আজ তার কিছুই মনে নেই আমার মনে সেই বাক্যালাপগুলি নিরন্তর শিশির হয়ে ঝরে পড়ে, মৌমাছি হয়ে গুনগুন করে স্বর্ণচাঁপা আর গোলাপ হয়ে ঝরতে থাকে; সেই ফুলের গন্ধে, সেই মৌমাছির গুঞ্জনে আর কোকিলের গানে ...

Read More »

মনে পড়ে __মহাদেব সাহা

এখন শুধু মনে পড়ে আর মনে পড়ে মনে পড়ে মেঘ, মনে পড়ে চাঁদ, জলের ধারা কেমন ছিলো- সেসব কথাই মনে পড়ে; এখন শুধু মনে পড়ে, নদীর কথা মনে পড়ে, তোমার কথা মনে পড়ে, এখন এই গভীর রাতে মনে পড়ে তোমার মুখ, তোমার ছায়া, তোমার বাড়ির ভেতর-মহল, তোমার উঠোন, সন্ধ্যাতারা এখন ...

Read More »

একা হয়ে যাও __মহাদেব সাহা

একা হয়ে যাও, নিঃসঙ্গ বৃক্ষের মতো ঠিক দুঃখমগ্ন অসহায় কয়েদীর মতো নির্জন নদীর মতো, তুমি আরো পৃথক বিচ্ছিন্ন হয়ে যাও স্বাধীন স্বতন্ত্র হয়ে যাও খণ্ড খণ্ড ইওরোপের মানচিত্রের মতো; একা হয়ে যাও সব সঙ্গ থেকে, উন্মাদনা থেকে আকাশের সর্বশেষ উদাস পাখির মতো, নির্জন নিস্তব্ধ মৌন পাহাড়ের মতো একা হয়ে যাও। ...

Read More »

এই শীতে আমি হই তোমার উদ্ভিদ __মহাদেব সাহা

শীত খুব তোমার পছন্দ, কিন্তু আমি শীত-গ্রীষ্ম-বসন্তের চেয়ে তোমাকেই বেশি ভালোবাসি; যে-কোনো ঋতু ও মাস, বৃষ্টি কিংবা বরফের চেয়ে মনোরম তোমার সান্নিধ্য, আমি তাই কার্ডিগান নয় বুকের উষ্ণতা দিয়ে ঢেকে দেই তোমার শরীর- আমি হই তোমার শীতের যোগ্য গরম পোশাক; কোল্ড ক্রিম আর এই তুচ্ছ প্রসাধনী রেকে আমি তোমাকে করতে ...

Read More »

আমার সোনার বাংলা __মহাদেব সাহা

আমি যে দেশকে দেখি সে কি এই স্বপ্নভূমি থেকে জেগে ওঠা বহুদূরব্যাপী কল্লোলিত, সে কি রূপসনাতন সে কি আমার সোনার বাংলা, কোনো রূপকথা নয়! তার চক্ষুদ্বয় তবে এমন কোটরাগত কেন, মুখ জুড়ে সূর্যাস্তের কালোছায়া, কেন তার সবুজ গাছের দিকে সহসা তাকালে দেখি ধূসর পিঙ্গল বর্ণ, নেমেছে তুষার আর মাছে সারি ...

Read More »

আমি কি বলতে পেরেছিলাম __মহাদেব সাহা

আমার টেবিলের সামনে দেয়ালে শেখ মুজিবের একটি ছবি টাঙানো আছে কোন তেলরঙ কিংবা বিখ্যাত স্কেচ জাতীয় কিছু নয় এই সাধারণ ছবিখানা ১৭ মার্চ- এ বছর শেখ মুজিবের জন্ম দিনে একজন মুজিব প্রেমিক আমাকে উপহার দিয়েছিলো কিন্তু কে জানতো এই ছবিখানা হঠাৎ দেয়াল ব্যপে একগুচ্ছ পত্র পুষ্পের মতো আমাদের ঘরময় প্রস্ফুটিত ...

Read More »

একুশের কবিতা – মহাদেব সাহা

ভিতরমহলে খুব চুনকাম, কৃষ্ণচূড়া এই তো ফোটার আয়োজন বাড়িঘর কী রকম যেন তাকে হলুদ অভ্যাসবশে চিনি, হাওয়া একে তোলপাড় করে বলে, একুশের ঋতু! ধীরে ধীরে সন্ধ্যার সময় সমস্ত রঙ মনে পড়ে, সূর্যাস্তের ন্নি সরলতা হঠাৎ আমারই জামা সূর্যাস্তের রঙে ছেয়ে যায়, আর আমার অজ্ঞাতে কারা আর্তনাদ করে ওঠে রক্তাক্ত রক্তিম ...

Read More »
DMCA.com Protection Status