রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর (Rabindranath Tagore) বাংলা সাহিত্যের কিংবদন্তী লেখক। আজও পর্যন্ত বাংলা সাহিত্যে তার সমপর্যায়ের কোনো লেখকের জন্ম হয়নি। একাধারে তিনি ছিলেন একজন কবি, ঔপন্যাসিক, গীতিকার, চিত্রকর, নাট্যকার, অভিনেতা, ছোটগল্পকার, প্রাবন্ধিক, কণ্ঠশিল্পী এবং দার্শনিক। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে বিশ্বকবি, কবিগুরু, গুরুদেব বলা হয়। তিনি ১৮৬১ সালের ৭ মে কলকাতার জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়ি জন্মগ্রহণ করেন। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ছদ্মনাম ভানুসিংহ ঠাকুর । গীতাঞ্জলি কাব্যগ্রন্থের জন্য তিনি ১৯১৩ সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন। বাংলাদেশে, ভারত ও শ্রীলঙ্কার জাতীয় সংগীত তিনিই রচনা করেন। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতা (kobita), গান, নাটক, উপন্যাস , ছোটগল্প সমভাবে জনপ্রিয়। সোনার তরী, যেতে নাহি দিব, দুই বিঘা জমি, বিপদে মোরে রক্ষা করো ইত্যাদি তার বিখ্যাত কবিতা (poem)।

দুই বিঘা জমি – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

শুধু বিঘে দুই ছিল মোর ভুঁই আর সবই গেছে ঋণে। বাবু বলিলেন, ‘ বুঝেছ উপেন, এ জমি লইব কিনে। ‘ কহিলাম আমি, ‘ তুমি ভূস্বামী, ভূমির অন্ত নাই। চেয়ে দেখো মোর আছে বড়ো – জোর মরিবার মতো ঠাঁই। ‘ শুনি রাজা কহে, ‘ বাপু, জানো তো হে, করেছি বাগানখানা পেলে ...

Read More »

আষাঢ় – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

নীল নবঘনে আষাঢ়গগনে তিল ঠাঁই আর নাহি রে। ওগো, আজ তোরা যাস নে ঘরের                         বাহিরে। বাদলের ধারা ঝরে ঝর-ঝর, আউশের খেত জলে ভর-ভর, কালী-মাখা মেঘে ও পারে আঁধার             ঘনিয়েছে দেখ্‌ চাহি রে। ওগো, আজ তোরা যাস নে ঘরের                                 বাহিরে। ওই ডাকে শোনো ধেনু ঘনঘন,             ধবলীরে আনো গোহালে। এখনি আঁধার হবে ...

Read More »

এবার নীরব করে দাও হে তোমার __রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

এবার নীরব করে দাও হে তোমার মুখর কবিরে। তার হৃদয়-বাঁশি আপনি কেড়ে বাজাও গভীরে। নিশীথরাতের নিবিড় সুরে বাঁশিতে তান দাও হে পুরে যে তান দিয়ে অবাক কর’ গ্রহশশীরে। যা-কিছু মোর ছড়িয়ে আছে জীবন-মরণে, গানের টানে মিলুক এসে তোমার চরণে। বহুদিনের বাক্যরাশি এক নিমেষে যাবে ভাসি, একলা বসে শুনব বাঁশি অকূল ...

Read More »

আমাদের ছোট নদী – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

আমাদের ছোটো নদী চলে বাঁকে বাঁকে বৈশাখ মাসে তার হাঁটু জল থাকে। পার হয়ে যায় গোরু, পার হয় গাড়ি, দুই ধার উঁচু তার, ঢালু তার পাড়ি। চিক্ চিক্ করে বালি, কোথা নাই কাদা, একধারে কাশবন ফুলে ফুলে সাদা। কিচিমিচি করে সেথা শালিকের ঝাঁক, রাতে ওঠে থেকে থেকে শেয়ালের হাঁক। আর-পারে ...

Read More »

চিত্ত তোমায় নিত্য হবে __রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

আমার চিত্ত তোমায় নিত্য হবে সত্য হবে – ওগো সত্য, আমার এখন সুদিন। ঘটবে কবে। সত্য সত্য সত্য জপি, সকল বুদ্ধি সত্যে সঁপি, সীমার বাঁধন পেরিয়ে যাব নিখিল ভবে – সত্য তোমার পূর্ণ প্রকাশ দেখব কবে। তোমায় দূরে সরিয়ে মরি আপন অসত্যে। কী যে কান্ড করি গো সেই ভূতের রাজত্বে। ...

Read More »

আমার মাথা নত করে দাও হে তোমার __রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

আমার মাথা নত করে দাও হে তোমার চরণধুলার তলে । সকল অহংকার হে আমার ডুবাও চোখের জলে । নিজেরে করিতে গৌরব দান নিজেরে কেবলই করি অপমান, আপনারে শুধু ঘেরিয়া ঘেরিয়া ঘুরে মরি পলে পলে । সকল অহংকার হে আমার ডুবাও চোখের জলে । আমারে না যেন করি প্রচার আমার আপন ...

Read More »

আমি বহু বাসনায় প্রাণপণে চাই __রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

আমি বহু বাসনায় প্রাণপণে চাই, বঞ্চিত করে বাঁচালে মোরে। এ কৃপা কঠোর সঞ্চিত মোর জীবন ভ’রে। না চাহিতে মোরে যা করেছ দান আকাশ আলোক তনু মন প্রাণ, দিনে দিনে তুমি নিতেছ আমায় সে মহাদানেরই যোগ্য করে অতি-ইচ্ছার সংকট হতে বাঁচায়ে মোরে। আমি কখনো বা ভুলি, কখনো বা চলি তোমার পথের ...

Read More »

কত অজানারে জানাইলে তুমি __রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

কত অজানারে জানাইলে তুমি, কত ঘরে দিলে ঠাঁই- দূরকে করিলে নিকট, বন্ধু, পরকে করিলে ভাই। পুরনো আবাস ছেড়ে যাই যবে মনে ভেবে মরি কী জানি কী হবে, নূতনের মাঝে তুমি পুরাতন সে কথা যে ভুলে যাই। দূরকে করিলে নিকট, বন্ধু, পরকে করিলে ভাই। জীবনে মরণে নিখিল ভুবনে যখনি যেখানে লবে, ...

Read More »

বিপদে মোরে রক্ষা করো – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

বিপদে মোরে রক্ষা করো এ নহে মোর প্রার্থনা, বিপদে আমি না যেন করি ভয়। দুঃখতাপে ব্যথিত চিতে নাই বা দিলে সান্ত্বনা, দুঃখে যেন করিতে পারি জয়। সহায় মোর না যদি জুটে নিজের বল না যেন টুটে, সংসারেতে ঘটিলে ক্ষতি লভিলে শুধু বঞ্চনা নিজের মনে না যেন মানি ক্ষয়। আমারে তুমি ...

Read More »

অন্তর মম বিকশিত করো __রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

অন্তর মম বিকশিত করো অন্তরতর হে। নির্মল করো, উজ্জ্বল করো, সুন্দর কর হে। জাগ্রত করো, উদ্যত করো, নির্ভয় করো হে। মঙ্গল করো, নরলস নিঃসংশয় করো হে। অন্তর মম বিকশিত করো, অন্তরতর হে। যুক্ত করো হে সবার সঙ্গে, মুক্ত করো হে বন্ধ, সঞ্চার করো সকল মর্মে শান্ত তোমার ছন্দ। চরণপদ্মে মম ...

Read More »
DMCA.com Protection Status