Breaking News
Home / বাণী চিরন্তন / ড. বিলাল ফিলিপস এর উক্তি (পর্ব-২)

ড. বিলাল ফিলিপস এর উক্তি (পর্ব-২)

ড. বিলাল ফিলিপস এর বাণী/উক্তি ঃ

৫৮। মুসলিম হিসেবে জন্মগ্রহণের চেয়ে মুসলিম হিসেবে মৃত্যুবরণ করতে পারাটাই অধিক গুরুত্বপূর্ণ। – ড. বিলাল ফিলিপস

৫৯। আল্লাহর পক্ষ হতে নির্ধারিত প্রতিটা বিষয়ই আপনার প্রতি সুবিচার। প্রয়োজন শুধু আপনাকে তাঁর প্রতি আস্থাশীল ও নির্ভরশীল হওয়া এবং তাঁরই উপর ভরসা করা। – ড. বিলাল ফিলিপস

৬০। নিজেকে দুশ্চিন্তামুক্ত রাখতে প্রতিটা বিষয়ে আল্লাহর উপর ভরসা করুন । কেননা আপনার জন্য কোনটি কল্যাণকর তা তিনিই ভালো জানেন। – ড. বিলাল ফিলিপস

৬১। যেখানে এক নিমিষেই পেছনের সকল অন্যায় থেকে পরিত্রাণ পেয়ে একটি সুন্দর আগামীর আশা করা যায় সেখানে নিরাশ হওয়ার কোন প্রশ্নই আসে না । প্রয়োজন শুধু সত্যকে মেনে নেয়ার সৎসাহস। – ড. বিলাল ফিলিপস

৬২। যেখানে রসূলুল্লাহ্ (সা:) প্রতিদিন ৭০ বারের অধিক আল্লাহর নিকট ক্ষমা প্রার্থনা করতেন, সেখানে আমরা অন্তত দুই-একবার করছিতো? – ড. বিলাল ফিলিপস

৬৩। যে কেউ আল্লাহর নিকট নিজেকে সমর্পণ করবে সে কিছুই হারাবে না। – ড. বিলাল ফিলিপস

৬৪। সত্যিকার সফল তখনই হবেন, যখন আপনি জান্নাতে প্রবেশ করবেন। – ড. বিলাল ফিলিপস

৬৫। আল্লাহর উপর বিশ্বাস রাখুন । সবকিছুই কারণবশত ঘটে থাকে । একদিন আপনি বুঝতে পারবেন, আপনার জীবনে যা কিছু ঘটেছে তার প্রতিটাই আপনার জন্য উত্তম ছিলো। – ড. বিলাল ফিলিপস

৬৬। কোন হারাম সম্পর্কের মাধ্যমে কাউকে নিজের জন্য হালাল করার দুঃসাহস কখনোই দেখাবেন না । কারণ আগামীকালের নিশ্চয়তা কেউ আপনাকে দিতে পারবে না । – ড. বিলাল ফিলিপস

৬৭। আপনি যেমনিভাবে এক বিষয়ের প্রস্তুতি নিয়ে অন্য বিষয়ের পরীক্ষা দিতে পারেন না, তেমনিভাবে আপনি জাহান্নামের দিকে চলতে থেকে জান্নাতের খোঁজ পেতে পারেন না । – ড. বিলাল ফিলিপস

৬৮। মানুষ আপনার ভালো কাজগুলো ভুলে গিয়ে খারাপ কাজগুলোর সমালোচনা করে, আর আল্লাহ সুবহানওয়া তা’আলা আপনার ভালো কাজগুলো গ্রহণ করে খারাপ কাজগুলো ক্ষমা করেন । – ড. বিলাল ফিলিপস

৬৯। প্রত্যেকের অন্তরেই কিছু ব্যথা থাকে । তবে যারা আল্লাহর উপর ভরসা করে তারাই আরোগ্য লাভ করে ৷ – ড. বিলাল ফিলিপস

৭০। আপনি যতোই আল্লাহর আনুগত্য করবেন, আপনি ততোই সুখের সন্ধান পাবেন ৷ – ড. বিলাল ফিলিপস

৭১। আপনার যে কোন অর্জনে আল্লাহর প্রশংসা করুন । কারণ আল্লাহর দয়া ব্যতীত তা কখনো সম্ভব হতো না । – ড. বিলাল ফিলিপস

৭২। আপনি যা ভাবছেন, যা করছেন সবই এক উঁচুমানের মাধ্যমে রেকর্ড হচ্ছে এবং একদিন তা আপনার সামনেই উপস্থাপন করা হবে । তাহলে কি করে সেদিন আপনি নিজের মন্দকাজগুলোর জবাব দিবেন ? এখনি ঘুরে দাঁড়ান, আল্লাহর নিকট তাওবাহ্ করুন, এবং আল্লাহর পথে ফিরে আসুন । – ড. বিলাল ফিলিপস

৭৩। আল্লাহ্ আপনার প্রতিটা চাওয়াই পূরণ করে থাকেন । আর তা সবসময় আপনার জন্য হ্যাঁ না হলেও উত্তম হয়ে থাকে । – ড. বিলাল ফিলিপস

৭৪। যখন কেউ আপনার বিরুদ্ধে দাঁড়াবে, কোন যুক্তিসঙ্গত কারণ ছাড়াই দূরে চলে যাবে তখন মনে রাখবেন আপনার পাশে আল্লাহ্ রয়েছেন । তাই আল্লাহর উপর ভরসা রেখে সামনে চলুন । – ড. বিলাল ফিলিপস

৭৫। যে আল্লাহ্ রাতের পর দিনকে আনতে পারেন সে আল্লাহ্ অবশ্যই আপনার দুঃখের পর সুখ দিতে পারেন । তাই সর্বঅবস্থায় আল্লাহর উপর ভরসা করুন ।

৭৬। একমাত্র সম্পর্ক যা কখনো আপনাকে ব্যথিত করবে না তা হলো আপনার সৃষ্টিকর্তার (আল্লাহর) সাথে সম্পর্ক । তাই এটাকে মজবুত করতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করুন । – ড. বিলাল ফিলিপস

৭৭। আপনি যদি আপনার চারপাশটাকে ইসলামিক দেখতে চান, তাহলে এখনি নিজের মধ্যে ইসলাম প্রতিষ্ঠা শুরু করুন । অন্যথায় আপনার এই ইচ্ছা মূল্যহীন । – ড. বিলাল ফিলিপস

৭৮। ইসলাম কোন মানুষের সৃষ্ট ধর্ম নয়, তাই কেউ চাইলেই ইসলামকে থামিয়ে দিতে পারে না । বরং ইসলামকে দ্বীন হিসেবে মানুষের জন্য আল্লাহ্ তা’আলাই মনোনীত করেছেন এবং তা আল্লাহর কাছেই ফিরে যাবে । তাই মুসলিমদের হতাশ হবার কিছু নেই । – ড. বিলাল ফিলিপস

৭৯। যদি আপনি ইসলাম সম্পর্কে অজ্ঞ থাকেন তবে আপনি ISIS এর সহজ শিকার হতে পারেন! – ড. বিলাল ফিলিপস

 

৮০। আপনি যা ই করেন না কেন এই দুনিয়ার মানুষদের সন্তুষ্ট করতে পারবেন না । তাই দুনিয়ার সকল মানুষদের খুশি করার মিথ্যা আশা ছেড়ে তাদের সৃষ্টিকর্তাকে খুশি করতে চেষ্টা করুন । – ড. বিলাল ফিলিপস

৮১। কোন কিছু আপনার ইচ্ছানুযায়ী হচ্ছে না মানে আল্লাহ্ সুবহানহুয়া আপনাকে শুনছেন না এমনটা নয় । বরং তিনি আপনাকে এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার সুযোগ দিয়ে যাচ্ছেন । তাই এরকম পরিস্থিতিতে সবসময় ধৈর্যধারণ করুন । – ড. বিলাল ফিলিপস

৮২। আল্লাহ্ তা’আলা যদি আপনার জন্য কিছু বরাদ্দ করে রাখেন তা আপনি অবশ্যই পাবেন । সময় কিংবা পথের ভিন্নতা হতে পারে, তবে আপনার যা ছিলো তা থাকবেই । প্রয়োজন শুধু আল্লাহর উপর ভরসা । – ড. বিলাল ফিলিপস

৮৩। আপনি যদি কাউকে পছন্দ করেন তাঁর জন্য দু’আ করুন, আবার যদি কাউকে অপছন্দ করেন তার জন্যও দু’আ করুন । কারণ দু’আ সবার জন্য এবং সবকিছুই পরিবর্তন করে দিতে পারে । – ড. বিলাল ফিলিপস

৮৪। আল্লাহ্ যদি আপনাকে বেশি ভালোবাসেন, তাহলে আপনাকে একটু বেশিই পরীক্ষায় ফেলবেন । তাই ধৈর্যের সাথে আল্লাহর প্রশংসা করুন …. । – ড. বিলাল ফিলিপস

৮৫। আপনার যে জীবনটাকে আপনি ঘৃণা করছেন, অনেকেই সেটার স্বপ্ন দেখছে। – ড. বিলাল ফিলিপস

৮৬। পেছনে ফেলে আসা হাজারটা হতাশা মিলেও এইমূহর্তে (বর্তমানে) ভালো একটি কাজের সমান হবে না। তাই অতীতকে নিয়ে দুশ্চিন্তা না করে বর্তমানকে নিয়ে এগিয়ে যান। – ড. বিলাল ফিলিপস

৮৭। একজন মানুষ যখন বুঝতে পারেন তার জীবনে আল্লাহর রাহমাতের সংখ্যা এতই বেশি যে তা গুণে শেষ করা সম্ভব নয়, তখন তার কাছে দুনিয়ার জীবনের পরীক্ষাগুলোকে আল্লাহর নি’আমাতের সমুদ্রের তুলনায় বৃষ্টির ফোঁটার মতন মনে হয় এবং ধৈর্যধারণ (সবর) করা তখন তার জন্য সহজ হয়ে যায়। – ড. বিলাল ফিলিপস

৮৮। আল্লাহ্ সুবাহানহুয়া তা’আলা আমাদের জন্য কখনোই কোন অল্টারনেটিভ অপশন কিংবা দ্বিতীয় পছন্দ নয়। বরং তিনিই আমাদের প্রথম ও শেষ ভরসা।

৮৯। আপনার পাপের পরিমাণ যতই বেশি হোক না কেন, আল্লাহর অনুগ্রহ ও ক্ষমা এর চেয়ে অনেক বেশি। তাই এখনই ঘুরে দাঁড়ান। – ড. বিলাল ফিলিপস

৯০। কোরআনের আয়াতকে তাবিজ হিসেবে পরিধান করা যেন সেই অসুস্থ ব্যাক্তির উদাহারণ, যাকে ডাক্তার প্রেসক্রিপশন লিখে দিয়েছেন, কিন্তু তা পড়ে ওষুধ সেবন করার পরিবর্তে সে প্রেসক্রিপশনটিকে গুটিয়ে বলের মত বানিয়ে ছোট্ট থলেতে ভরে গলায় ঝুলিয়ে রাখল এ বিশ্বাসে যে এতেই সে সুস্থ হয়ে যাবে। – ড. বিলাল ফিলিপস

৯১। আল্লাহর স্মরণে আপনার কপালটা মাটিতে রেখে (অর্থাৎ সিজদানবত হয়ে) আপনার দুঃখগুলো নিমিষেই দূরে সরিয়ে দিতে পারেন। – ড. বিলাল ফিলিপস

৯২। আল্লাহ্ তা’আলার নিকট দু’আ করুন এবং উত্তর পেতে আত্মবিশ্বাস রাখুন। – ড. বিলাল ফিলিপস

৯৩। আল্লাহ্ সুবাহানহুয়া তা’আলা আপনার ইচ্ছাপোষণ সম্পর্কে এতটাই অবহিত আছেন যে, আপনার ঠোঁট নাড়ানোর পূর্বেই তিনি বুঝতে পারেন। তাই আপনার প্রতিটা ইচ্ছে-ই যেন হয় সুন্দর ও উত্তম। – ড. বিলাল ফিলিপস

৯৪। কেবল তখনই কথা বলেন যখন আপনার নীরবতা থাকার চেয়ে কথা বলাটা উত্তম। – ড. বিলাল ফিলিপস

৯৫। নিজেকে দামী পোশাকের আবারণে ঢাকার চেয়ে উত্তম চরিত্রে সজ্জিত করাই অধিক গুরুত্বপূর্ণ ও বুদ্ধিমানের কাজ। – ড. বিলাল ফিলিপস

৯৬। এমন কাউকে খুঁজে নিন যে আপনার সাথে হালাল সম্পর্ক (বিয়ে) স্থাপন করতে চায়, এমন কাউকে নয় যে আপনার সাথে হারাম সম্পর্ক স্থাপন করতে চায়। – ড. বিলাল ফিলিপস

৯৭। যখন বিয়ে কঠিন হয়ে যায় তখন জিনা (ব্যাভিচারীতা) সহজ হয়ে যায়। তাই বিয়েকে যথাসাধ্য সহজ করুন।

৯৮। যে বিষয়টা আল্লাহর নিকট চাচ্ছেন, সে বিষয়টা নিয়ে কেন আপনি চিন্তিত হচ্ছেন? – ড. বিলাল ফিলিপস

৯৯। আল্লাহ্ সুবাহানহুয়া তা’আলা সবসময়ই আমাদের জন্য কোন একটি উপায় বের করে দেন, এমনকি আমরা যখন মনে করি আর কোন উপায় নেই তখনও।

১০০। আল্লাহ্ সুবাহানহুয়া তা’আলা ব্যতীত কেউ আপনাকে সুখের সন্ধান দিতে পারবে না। – ড. বিলাল ফিলিপস

১০১। সুখ তখনই যখন আপনি আপনার যা আছে তা নিয়ে সন্তুষ্ট। – ড. বিলাল ফিলিপস

১০২। যখন আল্লাহ্ সুবাহানহুয়া তা’আলাই আপনার শক্তি, তখন কেউই আপনাকে ভাঙতে পারবে না। – ড. বিলাল ফিলিপস

১০৩। বিভিন্ন মায়ের সন্তান, বিভিন্ন রং এর হয়েও একই ভাতৃত্বের বন্ধনে আবদ্ধ হয়। আর এটাই ইসলামের সৌন্দর্য, এটাই ভাতৃত্ব। – ড. বিলাল ফিলিপস

১০৪। কোন একটি অসম্ভব বিষয় কখনোই যেন আপনাকে আতঙ্কিত না করে। বরং তা যেন আপনার রব্বের প্রশংসা করতে, তাঁর নিকট চাইতে ও তাঁর দিকে ফিরে যেতে আপনার জন্য সহায়ক হয়। – ড. বিলাল ফিলিপস

১০৫। মুসলিম হওয়া মানে আপনার কোন সমস্যা থাকবেনা এমনটা নয়। তবে আপনার সাথে থাকবে সকল সমস্যার সমাধান দেওয়ার একমাত্র উৎস আল্লাহ্ সুবাহানহুয়া তা’আলা। – ড. বিলাল ফিলিপস

১০৬। দুঃখজনক কোন বিষয়ে আমাদেরকে সহজে মানিয়ে নিতে বিষয়টিকে এমনভাবে গ্রহণ করতে হবে যে, আল্লাহ্ তা’আলা আমাকে মানসিকভাবে দৃঢ় করতেই এমনটা করেছেন। – ড. বিলাল ফিলিপস

১০৭। আজ আপনি যে ছেলে/মেয়েটার সাথে হারাম সম্পর্কে লিপ্ত আছেন বিচারদিবসে সে-ই আপনার বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিবে। – ড. বিলাল ফিলিপস

১০৮। কেউ আপনার থেকে দূরে চলে যাওয়াতে অধিক চিন্তিত হবেন না। কারণ তা আল্লাহরই পরিকল্পনা ছিল। – ড. বিলাল ফিলিপস

১০৯। ভালোবাসা ও দয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ ও স্পর্শকাতর বিষয়। আর তা বিবাহিত জীবনে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে খুব ফুটে উঠে। তারা একে অপরকে ভালোবাসে, দয়া করে এবং নিরাপত্তা দেয়। – ড. বিলাল ফিলিপস

১১০। একজন মুসলিম স্বামীর প্রথম কর্তব্য হলো তার স্ত্রীকে ইসলামিক পথের নির্দেশনা দেয়া। – ড. বিলাল ফিলিপস

১১১। আপনি যদি চান আল্লাহ্ আপনার সবগুলো পছন্দনীয় কাজ গ্রহণ করুন, তাহলে আপনি আল্লাহর পছন্দনীয় কাজগুলোই করতে থাকুন। – ড. বিলাল ফিলিপস

১১২। দ্বীন ও দুনিয়া একসাথে অর্জন করতে কুরআন ও সুন্নাহ্ ব্যতীত অন্য কোন পথ নেই। যদিও মনে হবে দুনিয়া অপূর্ণই থেকে যাচ্ছে। – ড. বিলাল ফিলিপস

১১৩। অন্যকে দাওয়াত দিতে গিয়ে নিজেকে ভুলে যাবেন না। কারণ পরিবর্তন নিজেকে দিয়েই শুরু করতে হয়। – ড. বিলাল ফিলিপস

১১৪। আমরা যা শিখছি তা যদি আমাদের বিশ্বাসের উপর কোন প্রভাব ফেলতে না পারে, আমাদেরকে আল্লাহর কাছাকাছি নিয়ে যেতে না পারে, আমাদের বিশ্বাসকে আরো মজবুত করতে না পারে, তাহলে এর অর্থ হচ্ছে আমাদের উদ্দেশ্যে কিংবা নিয়্যাতে ভুল আছে। – ড. বিলাল ফিলিপস

আরও পড়ুন…  ড. বিলাল ফিলিপস এর উক্তি (পর্ব-১)

Check Also

মন নিয়ে বাণী

সততার বাণী

সততার বাণী, সততার উক্তি, সত্যের বাণী ,সত্যের উক্তি ঃ ১। সৎ লোক সাতবার বিপদে পড়লে আবার উঠে কিন্তু ...

DMCA.com Protection Status