Breaking News
Home / বাণী চিরন্তন / খনার বচন (পর্ব-৪)

খনার বচন (পর্ব-৪)

৬১। আষাঢ়ের পানি। তলে দিয়া গেলে সার। উপরে দিয়া গেলে ক্ষার।।
৬২। হালে নড়বড়, দুধে পানি লক্ষ্মী বলে চললাম আমি।
৬৩। হলে ফুল কাট শনা। পাট পাকিলে লাভ দ্বিগুণা।।
৬৪। শূন্য কলসী শুকনা না, শুকনা ডালে ডাকে কাক।
যদি দেখ মাকুন্দ চোপা, এক পা না যেও বাপ।
৬৫। ভরা হতে শুন্য ভাল যদি ভরতে যায়,
আগে হতে পিছে ভাল যদি ডাকে মায়।
মরা হতে তাজা ভাল যদি মরতে যায়,
বাঁয়ে হতে ডাইনে ভাল যদি ফিরে চায়।
বাঁধা হতে খোলা ভাল মাথা তুলে চায়,
হাসা হতে কাঁদা ভাল যদি কাঁদে বাঁয়।
৬৬। থাক দুখ পিতে,(পিত্তে) ঢালমু দুখ মাঘ মাসের শীতে।
৬৭। দশে মিলে করি কাজ হারি জিতি নাহি লাজ।
৬৮। খনা বলে শোনভাই তুলায় তুলা অধিক পাই।
৬৯। যে চাষা খায় পেট ভরে
গরুর পানে চায় না ফিরে
গরু না পায় ঘাস পানি
ফলন নাই তার হয়রানি।
৭০। এক পুরুষে রোপে তাল,
অন্য পুরুষি করে পাল।
তারপর যে সে খাবে,
তিন পুরুষে ফল পাবে।

৭১। জ্যৈষ্ঠে শুকো আষাঢ়ে ধারা। শস্যের ভার না সহে ধরা।
৭২। শুনরে বেটা চাষার পো, বৈশাখ জ্যৈষ্ঠে হলুদ রো।
আষাঢ় শাওনে নিড়িয়ে মাটি,ভাদরে নিড়িয়ে করবে খাঁটি।
হলুদ রোলে অপর কালে, সব চেষ্টা যায় বিফলে।
৭৩। চৈতে গিমা তিতা, বৈশাখে নালিতা মিঠা,
জ্যৈষ্ঠে অমৃতফল আষাঢ়ে খৈ, শায়নে দৈ।
ভাদরে তালের পিঠা, আশ্বিনে শশা মিঠা,
কার্তিকে খৈলসার ঝোল, অগ্রাণে ওল।
পৌষে কাঞ্ছি, মাঘে তেল, ফাল্গুনে পাকা বেল।
৭৪। আকাশে কোদালীর বাউ।
ওগো শ্বশুড় মাঠে যাও।।
মাঠে গিয়া বাঁধো আলি।
বৃষ্টি হবে আজি কালি।।
৭৫। উত্তর দুয়ারি ঘরের রাজা
দক্ষিণ দুয়ারি তাহার প্রজা।
পূর্ব দুয়ারির খাজনা নাই
পশ্চিম দুয়ারির মুখে ছাই।।
৭৬। ঘন সরিষা পাতলা রাই নেংগে নেংগে কার্পাস পাই।
৭৭। যদি বর্ষে মাঘের শেষ, ধন্যি রাজার পুণ্য দেশ।।যদি বর্ষে ফাগুনে, রাজা যায় মাগুনে।
৭৮। তাল বাড়ে ঝোঁপে খেজুর বাড়ে কোপে।
৭৯। গাজর, গন্ধি, সুরী তিন বোধে দূরী।
৮০। যদি না হয় আগনে বৃষ্টি তবে না হয় কাঁঠালের সৃষ্টি।

ক্ষণার বচন (পর্ব-১)

ক্ষণার বচন (পর্ব-২)

ক্ষণার বচন (পর্ব-৩)

ক্ষণার বচন (পর্ব-৫)

ক্ষণার বচন (পর্ব-৬)

ক্ষণার বচন (পর্ব-৭)

ক্ষণার বচন (পর্ব-৮)

ক্ষণার বচন (পর্ব-৯)

Check Also

মন নিয়ে বাণী

সততার বাণী

সততার বাণী, সততার উক্তি, সত্যের বাণী ,সত্যের উক্তি ঃ ১। সৎ লোক সাতবার বিপদে পড়লে আবার উঠে কিন্তু ...

DMCA.com Protection Status